• Hillbd newsletter page
  • Hillbd rss page
  • Hillbd twitter page
  • Hillbd facebook page
সর্বশেষ
রাঙামাটিতে সপ্তাহব্যাপী দেশ বরেণ্য চিত্র শিল্পীদের নিয়ে আর্ট ক্যাম্প সমাপ্ত                    এইচএসসিতে রাঙামাটিতে ফলাফল বিপর্যয়,পাশের হার ৪৯.১১ শতাংশ                    জাতীয় মৎস্য সপ্তাহ উপলক্ষে রাঙামাটিতে র‌্যালী, মাছের পোনা অবমুক্তকরণ                    খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলা পরিষদের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যানের দায়িত্বে তরুন নেতা জুয়েল চাকমা                    সাপছড়ি উচ্চ বিদ্যালয়ে দুর্নীতিবিরোধী কুইজ প্রতিযোগিতা                    রাঙামাটিতে সমাজকল্যাণ পরিষদের অনুদানের চেক বিতরণ                    খাগড়াছড়ি জেলায় পাশের হার ৩৬.৬১ শতাংশ                    বান্দরবানের উন্নয়ন অব্যাহত রাখতে আবারো নৌকা মার্কায় ভোট দিন-পার্বত্য প্রতিমন্ত্রী                    কর্ণফুলী নদীতে সেতু নির্মাণে সম্ভাব্যতা যাচাইয়ে সেতু বিভাগের তিন প্রকৌশলীর এলাকা পরিদর্শন                    মুক্তিযুদ্ধের ৩০ লক্ষ শহীদ স্মরণে আলীকদমে চারা বিতরণ ও বৃক্ষরোপন                    ৩০ লক্ষ শহীদদের স্মরণে জুরাছড়িতে বৃক্ষ রোপণ কর্মসূচির উদ্বোধন                    বরকলে বৃক্ষ রোপণ কর্মসূচির উদ্বোধন                    ৩০ লক্ষ শহীদদের স্মরণে রাঙামাটিতে ৫৬ হাজার বৃক্ষরোপণ                    জাতীয় মৎস্য সপ্তাহ উপলক্ষে পানছড়িতে সংবাদ সম্মেলন                    পার্বত্য চুক্তির প্রতি শ্রদ্ধা রেখে সবাইকে কাজ করতে হবে-বৃষকেতু চাকমা                    পলি ও ড্যাম নির্মাণের কারণে কাপ্তাই হ্রদে রুই জাতীয় মাছের উৎপাদন কমছে                    কাপ্তাইয়ে মৎস্য সপ্তাহ উপলক্ষে সংবাদ সন্মেলন                    লামা ও আলীদমে উন্নয়ন কাজ পরিদর্শনে পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ড চেয়ারম্যান                    পানছড়িতে বিভিন্ন প্রজাতির সাত হাজার বৃক্ষরোপন                    কাপ্তাইয়ে ফলদ বৃক্ষ রোপন পক্ষ ও জাতীয় ফল প্রদর্শনী জমে উঠেনি!                    লামায় ৩বসত ঘর গুঁড়িয়ে দিয়েছে বন্য হাতির পাল                    
 

রাঙামাটি সরকারী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের দুদিন ব্যাপী সূবর্ণ জয়ন্তীর উদ্ধোধনী অনুষ্ঠানে
শান্তি চুক্তির মধ্য দিয়ে বর্তমানে পার্বত্য চট্টগ্রামে শান্তি ফিরে এসেছে-ডেপুটি স্পিকার

স্টাফ রিপোর্টার : হিলবিডি টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published: 10 Mar 2017   Friday

জাতীয় সংসদের ডেপুটি স্পিকার মোহাম্মদ ফজলে রাব্বি মিয়া এমপি পার্বত্য চট্টগ্রাম শান্তি চুক্তি বাস্তবায়ন হয়েছে এবং তার বাস্তবায়ন প্রক্রিয়া চলমান রয়েছে বলে মস্তব্য করেছেন।

 

তিনি বলেন, পার্বত্য পার্বত্য চট্টগ্রাম এক সময় অশান্ত ছিল। ১৯৯৬ সালের নির্বাচনের মাধ্যমে জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর কন্যা শেখ হাসিনা প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত হলে তখন জাতীয় সংসদে চীফ হুইপ আবুল হাসানাতকে প্রধান করে জাতীয় কমিটি গঠন করা হয়েছিল পার্বত্য চট্টগ্রামে শান্তি ফিরিয়ে আনার জন্য। এ কমিটি পক্ষ থেকে যারা শান্তি বিঘ্ন করতে চাইছে তাদের সাথে সৌহার্দ্যপূর্ন বৈঠক এবং তাদের মানসিকতা পরিবর্তন এনে কাধেকাধ মিলিয়ে এ অঞ্চলকে একটি অসম্প্রদায়িক দেশ গড়ার লক্ষে ১৯৯৭ সালের ২ ডিসেম্বর পার্বত্য চট্টগ্রাম শান্তি চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়েছিল। এ  পার্বত্য শান্তি চুক্তির মধ্য দিয়ে বর্তমানে পার্বত্য চট্টগ্রামে শান্তি ফিরে এসেছে। এ অঞ্চলে উন্নয়ন হয়েছে এবং আরো উন্নয়নের দিকে ধাবিত হচ্ছে।  

 

ডেপুটি স্পিকার আরো বলেন, বাংলাদেশ সরকার জিরো টোলারেন্সের মাধ্যমে জঙ্গীবাদ প্রায় মূলৎপাতন করেছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশে  কোন জঙ্গী সংগঠনকে মাথাসাড়া দিয়ে দাড়াঁতে দেওয়া হবে না। তিনি এ জন্য দেশের এবং পার্বত্য চট্টগ্রামের জনগনের কাছ  থেকে সকল প্রকার সহযোগিতার আহ্বান জানান।

 

শুক্রবার রাঙামাটি সরকারী উচ্চ বিদ্যালয়ের দুদিন ব্যাপী সূবর্ণ জয়ন্তী উৎসবের উদ্ধোধনী অনুষ্ঠানের  প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

 

ডেপুটি স্পিকার বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান জাতিকে স্বাধীনতা এনে দিয়েছেন। আর এখন দেশকে উন্নয়নের দিকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছেন তার সুযোগ্য কন্যা বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি শেখ হাসিনার নেতৃত্বে সমৃদ্ধশীল দেশ ও জাতি গঠনে পার্বত্য চট্টগ্রামসহ দেশবাসী সবাইকে এগিয়ে আসার আহবান জানান।

 

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ১৯৭৪ সালে রাঙামাটি বালিকা উচ্চবিদ্যালয়টির সরকারিকরণ ঘোষণা করেছিলেন উল্লেখ করে ডেপুটি স্পিকার বলেন, বঙ্গবন্ধু পিছিয়ে পড়া পার্বত্য চট্টগ্রাম অঞ্চলে শিক্ষার উন্নয়নে ব্যাপক পরিকল্পনা হাতে নিয়েছিলেন। তারই ধারাবাহিকতায় বর্তমান প্রধানমন্ত্রী পার্বত্য চট্টগ্রামে বিভিন্ন উচ্চশিক্ষা প্রতিষ্ঠান স্থাপন এবং প্রতি উপজেলায় একটি করে কলেজসহ স্কুলগুলো জাতীয়করণের আওতায় এনেছেন।

 

ডেপুটি স্পিকার ফজলে রাব্বি মিয়া আরো বলেন, বাংলাদেশ সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির দেশ। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সব সময় বলেন যে ধর্ম যার যার রাষ্ট্র ও উৎসব সবার। শেখ হাসিনার আন্তরিক সদিচ্ছায় আজ পার্বত্য চট্টগ্রামে শান্তি ও সম্প্রীতি এসেছে। তার আন্তরিকতার ফলে বর্তমানে পার্বত্য চট্টগ্রামে শিক্ষাসহ ব্যাপক উন্নয়ন কর্মকান্ড পরিচালিত হচ্ছে। 

 

তিনি বলেন, উন্নয়নে নারীদের প্রাধান্য দিচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী। তিনি শিক্ষার জন্য এবং শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে নিয়োগের ক্ষেত্রে নারীদের জন্য ৬০ ভাগ কোটা সংরক্ষণের নির্দেশ দিয়েছেন। নারীদের সুশিক্ষিত হয়ে দেশ গঠনের আহবান জানিয়ে ১৬ বছরের নিচে মেয়েদের হাতে মুঠোফোন না দেয়ার জন্য অভিভাবকদের প্রতি আহবান জানান ডেপুটি স্পিকার। 

 

বিদ্যালয় প্রাঙ্গনে দুদিন ব্যাপী সূবর্ণ জয়ন্তী উৎসবের উদ্ধোধনী অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ মানজারুল মান্নান। এতে বিশেষ অতিথি ছিলেন রাঙামাটি আসনের সাংসদ উষাতন তালুকদার, সংরক্ষিত মহিলা আসনের সাংসদ ফিরোজা বেগম চিনু, সাবেক পার্বত্য প্রতিমন্ত্রী দীপংকর তালুকদার, পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ডের ভাইস-চেয়ারম্যান তরুন কান্তি ঘোষ, পুলিশ সুপার সাঈদ তারিকুল হাসান ও  সেনাবাহিনীর রাঙামাটির সদর জোন কমান্ডার লেফটেন্যান্ট কর্নেল রিদোয়ান-উল হক । স্বাগত বক্তব্যে রাখেন বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক শরিৎ কুমার চাকমা।

 

সূবর্ণ জয়ন্তী অনুষ্ঠানে বিদ্যালয়ের প্রাক্তন ও  বর্তমানে অধ্যায়নরত শিক্ষার্থীসহ প্রায় দেড় হাজার জন অংশ নেন। এছাড়াও স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ও প্রশাসনিক কর্মকর্তাসহ আমন্ত্রিত অতিথি, শিক্ষক, ও অভিভাবকরা উপস্থিত ছিলেন। দুপুরের দিকে বিদ্যালয়ের প্রাক্তন শিক্ষার্থীদের স্মৃতিচারণ অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়। এতে প্রাক্তন শিক্ষক-ছাত্রীরা স্মৃতচিারণ বক্তব্যে দেন।

 

এর আগে প্রধান অতিথি বেলুন ও পায়রা উড়িয়ে উৎসবের উদ্ধোধন করেন। অনুষ্ঠান শেষে মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান পরিবেশিত হয়।

 

এদিকে সকালের দিকে জেলা প্রশাসক নেতৃত্ব একটি বের করা হয়। র‌্যালিটি পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন  বোর্ড কার্যালয়  প্রাঙ্গন থেকে শুরু করে  রাঙামাটি সরকারী উচ্চ বিদ্যালয় প্রাঙ্গনে  গিয়ে শেষ হয়।

 

এদিকে অনুষ্ঠান সুষ্ঠু, সফল ও শান্তিশৃংখলাপূর্ণভাবে সম্পন্ন করতে এবং আমন্ত্রিত প্রাক্তন ছাত্রীদের যাতে কোনো ধরনের সমস্যা বা ঝামেলায় পড়তে না হয় সেজন্য পর্যাপ্ত নিরাপত্তার ব্যবস্থাসহ সর্বোচ্চ পদক্ষেপ জোরদার করে জেলা প্রশাসন ও বিদ্যালয় পরিচালনা কর্তৃপক্ষ।

 

উল্লেখ্য, রাঙামাটি সরকারী উচ্চ বিদ্যালয়টি ১৯৬৬ সালে স্থাপিত হয়। পরবর্তীতে ১৯৭৩ সালে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিদ্যালয়টিকে জাতীয়করণ করেন। দীর্ঘ পথ পেরিয়ে এবছর বিদ্যালয়টি প্রতিষ্ঠার ৫০ বছর পূর্ণ করেছে।

--হিলবিডি২৪/সম্পাদনা/সিআর.

আর্কাইভ