• Hillbd newsletter page
  • Hillbd rss page
  • Hillbd twitter page
  • Hillbd facebook page
সর্বশেষ
রাঙামাটিতে সপ্তাহব্যাপী দেশ বরেণ্য চিত্র শিল্পীদের নিয়ে আর্ট ক্যাম্প সমাপ্ত                    এইচএসসিতে রাঙামাটিতে ফলাফল বিপর্যয়,পাশের হার ৪৯.১১ শতাংশ                    জাতীয় মৎস্য সপ্তাহ উপলক্ষে রাঙামাটিতে র‌্যালী, মাছের পোনা অবমুক্তকরণ                    খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলা পরিষদের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যানের দায়িত্বে তরুন নেতা জুয়েল চাকমা                    সাপছড়ি উচ্চ বিদ্যালয়ে দুর্নীতিবিরোধী কুইজ প্রতিযোগিতা                    রাঙামাটিতে সমাজকল্যাণ পরিষদের অনুদানের চেক বিতরণ                    খাগড়াছড়ি জেলায় পাশের হার ৩৬.৬১ শতাংশ                    বান্দরবানের উন্নয়ন অব্যাহত রাখতে আবারো নৌকা মার্কায় ভোট দিন-পার্বত্য প্রতিমন্ত্রী                    কর্ণফুলী নদীতে সেতু নির্মাণে সম্ভাব্যতা যাচাইয়ে সেতু বিভাগের তিন প্রকৌশলীর এলাকা পরিদর্শন                    মুক্তিযুদ্ধের ৩০ লক্ষ শহীদ স্মরণে আলীকদমে চারা বিতরণ ও বৃক্ষরোপন                    ৩০ লক্ষ শহীদদের স্মরণে জুরাছড়িতে বৃক্ষ রোপণ কর্মসূচির উদ্বোধন                    বরকলে বৃক্ষ রোপণ কর্মসূচির উদ্বোধন                    ৩০ লক্ষ শহীদদের স্মরণে রাঙামাটিতে ৫৬ হাজার বৃক্ষরোপণ                    জাতীয় মৎস্য সপ্তাহ উপলক্ষে পানছড়িতে সংবাদ সম্মেলন                    পার্বত্য চুক্তির প্রতি শ্রদ্ধা রেখে সবাইকে কাজ করতে হবে-বৃষকেতু চাকমা                    পলি ও ড্যাম নির্মাণের কারণে কাপ্তাই হ্রদে রুই জাতীয় মাছের উৎপাদন কমছে                    কাপ্তাইয়ে মৎস্য সপ্তাহ উপলক্ষে সংবাদ সন্মেলন                    লামা ও আলীদমে উন্নয়ন কাজ পরিদর্শনে পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ড চেয়ারম্যান                    পানছড়িতে বিভিন্ন প্রজাতির সাত হাজার বৃক্ষরোপন                    কাপ্তাইয়ে ফলদ বৃক্ষ রোপন পক্ষ ও জাতীয় ফল প্রদর্শনী জমে উঠেনি!                    লামায় ৩বসত ঘর গুঁড়িয়ে দিয়েছে বন্য হাতির পাল                    
 

রাঙামাটিতে পাহাড় ধসের ঘটনায় নিখোজ ৩জনকে মৃত ঘোষনাঃ মৃতের সংখ্যা ১১৮-তে দাঁড়ালো

স্টাফ রিপোর্টার : হিলবিডি টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published: 19 Jun 2017   Monday
সোমবার রাঙামাটি সরকারী কলেজে আশ্রিত ক্ষতিগ্রস্থদের মাঝে খাবার বিতরণ করেন রাঙামাটি সদর জোন কমান্ডার লেঃকর্নেল রেদওয়ান।

সোমবার রাঙামাটি সরকারী কলেজে আশ্রিত ক্ষতিগ্রস্থদের মাঝে খাবার বিতরণ করেন রাঙামাটি সদর জোন কমান্ডার লেঃকর্নেল রেদওয়ান।

রাঙামাটিতে পাহাড় ধসের ট্রাজেডির ঘটনায় সাত দিনের মাথায় মৃতের সংখ্যা ১১৮-এ তে দাড়িঁয়েছে। বৃষ্টিপাত হওয়ার কারণে লোকজন নিরাপদ আশ্রয়ে আসছেন। এ জন্য আশ্রয় কেন্দ্রের সংখ্যা বেড়েছে দুইটি বাড়িয়ে ১৯টি আশ্রয় কেন্দ্র খুলেছে। তাছাড়া বিধ্বস্ত হওয়া রাঙামাটি-চট্টগ্রাম সড়কের বৃষ্টিপাতের কারণে মেরামতের কাজ ব্যাহত হচ্ছে। তবে আশা করা যাচ্ছে আগামী ৩ থেকে ৪দিনের মধ্যে ওই সড়কে হালকা যানবাহন চলাচলের উপযোগী করা সম্ভব হবে।


সোমবার সন্ধ্যায় রাঙামাটি জেলা প্রশাসন কার্যালয়ে এক প্রেস ব্রিফিং করেন জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ মানজারুল মান্নান এসব তথ্য জানান।


প্রেস ব্রিফিং-এ তিনি বলেন, গেল ১৩ জুন পাহাড় ধসের ঘটনায় শহরের বাংলাদেশ টেভিশন উপকেন্দ্রের পাশে রুপনগর এলাকায় দরবেশ, রায়মা বেগম ও সালাহ উদ্দিন নামের ৩ নিখোজ হন। পরে এলাকাবাসী ও পৌর কর্তৃপক্ষ থেকে নিখোজদের মৃত্যুর সংবাদ নিশ্চিতের পর মৃত বলে ঘোষনা করা হয়। ।


তিনি আরো জানান, পাহাড় ধসের ঘটনার পর ক্ষতিগ্রস্থদের আশ্রয়ের জন্য রাঙামাটি শহরে বিভিন্ন এলাকায় ১৭টি আশ্রয় কেন্দ্র খোলা হয়েছে। কিন্তু বৃষ্টিপাতের কারণে আরো আশ্রিত মানুষ বেড়ে যাওয়ায় ২টি আশ্রয় কেন্দ্র খোলা হয়েছে। এসব আশ্রয় কেন্দ্রে নারী ও শিশুসহ ২৯শ মানুষ আশ্রয় গ্রহন করেছেন। তাদের দুবেলা খাবার ও নাস্তা ব্যবস্থার জন্য ৪টিতে সেনা বাহিনী,৪টিতে পুলিশ, ৪টিতে রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটিকে দায়িত্ব দেয়া হয়েছে।


জেলা প্রশাসক আরো জানান, ত্রান সহায়তা আহ্বান জানানোর পর সাথে সাথে পর্যাপ্ত পরিমানের ত্রাণ পাওয়া গেছে। এর মধ্যে নগদ টাকা হিসেবে ৪৭ লাখ ৯০ হাজার টাকা, চাউল দুই শ মেঃটনের আদেশ পাওয়া গেছে। শুধুমাত্র ৫শ বান্ডিল ঢেউ টিন পরিবহনের অসুবিধার কারণে তা রাঙামাটি সম্ভব হচ্ছে না। তবে কয়েক দিনের মধ্যে এসব ঢেউ টিন পৌছাবে। ।


তিনি বলেন, ক্ষতিগ্রস্থদের ত্রান বিতরনের ক্ষেত্রে সমন্বয়, স্যানিটেশন এবং নিশ্চিতা বিধানের লক্ষে রাঙামাটি বাইওে থেকে যারা ত্রাণ বিতরনে অংশ করতে তার পরিবর্তে সেই পরিমাণ নগদ অর্থ রাঙামাটি ইসলামী ব্যাংকে(হিসাব নং ২৮১৩) জমা দেয়ার জন্য অনুরোধ করা যাচ্ছে। তাছাড়া ক্ষতিগ্রস্থ পরিবারদের সন্তারদের বই প্রদান করা হয়েছে এবং আরো করা হবে। কিছু ৮ জন পাহাড়ী শিক্ষার্থীকে কলেজেন ভর্তিও জন্য টাকা করা হচ্ছে।


তিনি আরো বলেন, রাঙামাটিতে পাহাড় ধসের ঘটনায় ক্ষতিগ্রস্থদের পরিবারের তালিকা পুরোপুরি এখনো পাওয়া না গেলেও অনুমানিক সংখ্যা ১৬শ থেকে ১৭শ হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। তবে ক্ষয়ক্ষতির আর্থিক পরিমাণ এখনো নিশ্চিত হওয়া যায়নি।


সড়ক ও জনপথ বিভাগের উপসহকারী প্রকৌশলী মোঃ আবু মুছা জানান, পাহাড় ধসের কারণে বিধ্বস্থ রাঙামাটি-চট্টগ্রাম সড়কের সাপছড়ির শালবাগান এলাকার সড়ক মেরামতের কাজ দ্রুত গতিতে কাজ চালিয়ে যাচ্ছেন সেনাবাহিনী এবং সড়ক ও পথ বিভাগ। তবে বৃষ্টিúাতের কারণে সড়ক মেরামতের কাজ বিঘ্ন ঘটছে।আশা করা যাচ্ছে আগামী কয়েক দিনের মধ্যে হালকা যানবাহন চলাচলের উপযোগী করা সম্ভব হবে।


এদিকে, সোমবার রাঙামাটি সরকারী কলেজে আশ্রিত ক্ষতিগ্রস্থদের মাঝে খাবার বিতরণ করেছেন রাঙামাটি সদর জোন কমান্ডার লেঃকর্নেল রেদওয়ান। এসময় সদর জোনের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

 

অপরদিকে, পাহাড় ধসের ঘটনার পর রাঙামাটিতে পাহাড়, অথবা পাহাড় সংলগ্ন এলাকা বা ঢালে জেলা প্রশাসনের অনুমতি ব্যতিরেকে ঘরবাড়ি বা স্থাপনা নির্মাণ না করার নির্দেশনা জারি করেছে। এ নির্দেশনা অমান্যকারীদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে  বলে জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ মানজারুল মান্নানের স্বাক্ষরিত এক জরুরী নোটিশে একথা জানানো হয়েছে। এছাড়া জেলা প্রশাসনের এ সংক্রান্ত নির্দেশনা জেলা তথ্য অধিদপ্তর থেকে শহরে মাইকিং করা হয়।

 

উল্লেখ্য, গেল ১৩ জুন ভারী বর্ষনে রাঙামাটিতে পাহাড় ধসে মাটি চাপা পড়ে দুই সেনা কর্মকর্তা ও ৩ সেনা সদস্যসহ ১১৫ জন মারা যান। এর মধ্যে রাঙামাটি সদর উপজেলায় ৬৯ জন, কাউখালী উপজেলায় ২১ জন, কাপ্তাই উপজেলায় ১৮ জন, জুরাছড়ি ৬ জন ও বিলাইছড়ি ২ জন রয়েছেন। পাহাড় ধসের ঘটনায় শত শত ঘরবাড়ি বিধ্বস্ত হয়। ঘরবাড়ি হারিয়ে শুধুমাত্র রাঙামাটি শহরের ১৯টি আশ্রয় কেন্দ্রে ২৯শ মানুষ আশ্রয় নিয়েছেন। রাঙামাটি-চট্টগ্রাম ও রাঙামাটি-খাগড়াছড়ি এবং রাঙামাটি-বান্দরবান সড়ক যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন রয়েছে।
--হিলবিডি২৪/সম্পাদনা/সিআর.

এই বিভাগের সর্বশেষ
আর্কাইভ