• Hillbd newsletter page
  • Hillbd rss page
  • Hillbd twitter page
  • Hillbd facebook page
সর্বশেষ
দেশ থেকে অশুভ শক্তি বিনাশে সকল সম্প্রদায়ের মানুষকে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহ্বান-বৃষ কেতু চাকমা                    বুধবার থেকে রাঙামাটিতে পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ড প্রথম বিভাগ ফুটবল লীগ শুরু                    রাঙামাটিতে বিশ্ব হাত ধোয়া দিবস পালিত                    বরকল ও জুরাইছড়িতে ৫ দিন ধরে বিদ্যুৎ নেই, চরম দুর্ভোগ                    রাঙামাটিতে বিশ্ব সাদাছড়ি নিরাপত্তা দিবস পালিত                    মহালছড়িতে গাঁজাসহ ১ যুবককে আটক                    খাগড়াছড়িতে গৃহবধূ হত্যার দায়ে স্বামীর মৃত্যুদন্ড                    খাগড়াছড়িতে বিশ্ব হাত ধোয়া দিবস দিবস পালিত                    নির্বাচন নিয়ে নানা ষড়যন্ত্র করছে পরাজিত শক্তি                    পানছড়িতে পুরাতন ইউএনওকে বিদায় সংবর্ধনা ও নবাগতকে ইউএনওকে বরণ                    কাউখালী বিআরডিবি সমিতি নির্বাচন পরিচালনায় সভাপতির বিরুদ্ধে পক্ষপাতের অভিযোগ, দুজনের পদত্যাগ                    পরিষদ চেয়ারম্যানের সাথে রাঙামাটি সদর উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষক সমিতি’র সৌজন্য সাক্ষাত                    কাপ্তাইয়ে তিন দিনে রাম পাহাড় বনাঞ্চল থেকে কয়েক লাখ টাকার গাছ পাচারের অভিযোগ                    রাঙামাটিতে সরকারি ৪র্থ শ্রেণি কর্মচারি সমিতির নবনির্বাচিত কমিটি থেকে জেলা প্রশাসককে ফুলেল শুভেচ্ছা                    রাঙামাটিতে আন্ত:স্কুল বিতর্ক প্রতিযোগিতায় লেকার্স স্কুল চ্যাম্পিয়ন                    পার্বত্য চুক্তির ফলে পাহাড়ে অর্থনীতি ও সংস্কৃতি বিকাশে নবরযুগের সঞ্চার ঘটেছে বিদায়ী পানছড়ি ইউএনও                    স্যালভেশনের উদ্যোগে রাঙামাটি কলেজে ‘ক্লীন ক্যাম্পাস, গ্রীন ক্যাম্পাস’ অভিযান শুরু                    জুরাছড়িতে দুর্যোগ প্রশমন দিবস পালিত                    বাঘাইছড়িতে ছাত্রদলের প্রতিবাদ সভা                    বিলাইছড়িতে আন্তর্জাতিক দুর্যোগ প্রশমন দিবস পালিত                    বিলাইছড়িতে ফ্যাশন ডিজাইনের উপর প্রশিক্ষণ সমাপ্ত                    
 

পাহাড় ধস ট্র্যাজডি
কাপ্তাইয়ের ছোট্ট রোহানের চট্টগ্রামে গিয়ে আর ঈদের জামাকাপড় কিনা হল না

কাপ্তাই প্রতিনিধি : হিলবিডি টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published: 23 Jun 2017   Friday

কাপ্তাই উপজেলার ছোট্ট রোহান(৬) পাহাড় ধসের ঘটনার ৩ দিন আগে তার বাবার কাছে বায়না ধরেছিল ঈদের জামা কিনতে সে এবার চট্টগ্রাম শহরে যাবে। বাবা মো সবুজ মিয়া রাজি হয়ে যান। কিন্তু রোহানের আবদার মা রুবিনাকে সাথে নিতে হবে।।বাবা সবুজ মিয়া রাজি হয়ে যান।ছোট্ট রোহানের শেষ আবদার দাদু নুরনবী(৬৫) কে নিয়ে চট্টগ্রাম শহরে যাবে।

 

বাবা সবুজ তাতে রাজি হন। কথা ছিল গেল ১৬ শুক্রবার সবাই মিলে চট্টগ্রাম শহরে যাবে। কিন্তু ১৩ জুনের প্রয়লঙ্কারি ঝড়,তুফান এবং পাহাড় ধস সব ধ্বংস করে দিল। মাটিচাপা পড়ে রোহান, তার মা রুবিনা,রোহাদের দাদু নুরনবী সবাই একসাথে মৃত্যুবরণ করেন। সবুজ মিয়া সেদিন কর্মস্থলে থাকায় প্রাণে বেঁচে যান। কিন্তু প্রাণে বাঁচলে ও তার সবকিছু শেষ হয়ে গেছে।

 

সবুজের মতো কাপ্তাই এর পাহাড়ধসে মৃত অনেক পরিবারের থেকেও ঈদ হারিয়ে গেছে। একইভাবে কাপ্তাই এ পাহাড় ধসে অাহত ব্যাক্তি এবং ঘরবাড়ি হারোনো লোকজনের থেকে ঈদ অানন্দ হারিয়ে গেছে।

 

পাহাড় ধসে রাঙামাটির কাপ্তাইয়ে যেদিকে চোখ যায় শুধু ধ্বংসলীলা। পাহাড় ধস,রাস্তা ধস,ভেঙ্গে পড়েছে সকল যোগাযোগ ব্যবস্হা। গেল ১০ দিনেও সর্বত্র যোগাযোগ ব্যবস্হা স্বাভাবিক হয়নি। কাপ্তাইয়ে ১৮টি তাজা প্রাণ অকালে ঝরে গেছে। আহত হয়েছেন কয়েক শতাধিক। ঘরবাড়ি ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে সহস্রাধিক। কত টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে তা নিরূপণ করা এখনও সম্ভব হয়নি।


এই ধ্বংসের মধ্যেও মুসলিম ধর্মালম্বীদের সবচেয়ে বড় উৎসব ঈদুল ফিতর দৌঁড় গোড়ায় এসে হাজির।অন্যান্য সময় এ রকম ঈদের সময় পাহাড়ে বসবাসকারী মানুষের কেনাকাটায় ধুম পড়তো। ঈদে অন্যান্য ধর্মাবলম্বীরাও ঈদের আনন্দ থেকে বঞ্চিত হতেন না। তারাও পছন্দের জামা কাপড় কিনে ঈদের দিন পরিচিতজনদের বাসায় ঘুরে বেড়াতেন। তবে এবার সব কিছু স্বপ্ন হয়ে গেছে।।ঈদের আনন্দ পাহাড় থেকে হারিয়ে গেছে।পার্বত্য এলাকার বড় বাজার গুলোতে ঈদের কেনাকাটা নেই।।ব্যবসায়ীরা নতুন কোন পসরা সাজাতে পারছেন না। প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের ভরপুর পাহাড় যেন অন্ধকার ডুবে গেছে।।কারোর মুখে হাসি নেই কোথাও অানন্দ নেই।

 

কাপ্তাই পাহাড় ধসে মৃত অাবুল হোসেন,রোকসানা বেগম, রমজান অালীসহ অারো অনেক পরিবারের সাথে কথা বলে তারা জানান ঈদের অানন্দ নয় কিভাবে বেঁচে থাকবো কোথায় মাথা গুজাবো সেই চিন্তায় অামরা অস্থির।


কাপ্তাই উপজেলা মানবাধিকার কমিশনের সভাপতি খোরশেদুল আলম কাদেরী বলেন মৃত পরিবারের জন্য বিভিন্ন সংস্থা ও ব্যাক্তিগতভাবে কিছু সাহায্য সহোযোগিতা করেছেন।কিন্তু পাহাড় ধসে ঘরবাড়ি নিশ্চিহ্ন হয়ে যাওয়া পরিবার গুলোকে ঘর তোলার ব্যাপারে সকলে সহোযোগিতার হাত প্রসারিত করতে হবে। ঈদের দিন মৃত পরিবারদের একটু শান্তনা দিলে ঐ পরিবারের হয়তো কিছুটা সান্তনা পাবে।


কাপ্তাই উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান দিলদার হোসেন, কাপ্তাই নৌ বাহিনী স্কুলের প্রধান শিক্ষক স্কাউটস্ লিডার এম জাহাঙ্গীর আলম বলেন এবারের ঈদটা এই অঞ্চলের মানুষের জন্য বেদনাদায়ক। সমাজের সকল বিত্তবান লোকরা এগিয়ে আসলে হয়তোবা তারা এই ঈদে প্রিয়জনদের সাথে একটু ঈদের আনন্দ ভাগাভাগি করতে পারবেন।
--হিলবিডি২৪/সম্পাদনা/সিআর.

এই বিভাগের সর্বশেষ
আর্কাইভ