প্রথমবারের মতো রাঙামাটিতে ৪ জনের দেহে করোনা ভাইরাস শনাক্ত

Published: 06 May 2020   Wednesday   

প্রথমবারের মতো রাঙামাটিতে ৪ জনের দেহে করোনা ভাইরাসের পজিটিভ পাওয়া গেছে।আক্রান্তদের মধ্যে ৯ মাসের  এক শিশু ও  একজন নারী নার্স রয়েছেন। তারা সবাই রাঙামাটি শহরের বাসিন্দা।  করোনায় আক্রান্ত ব্যক্তিদের  বাড়ীসহ এলাকাগুলো লকডাউন করা হয়েছে। 

 

এদিকে,করোনা ভাইরাসের আক্রান্তের জেলার মধ্যে খাগড়াছড়ি জেলার পর সর্বশেষ জেলা হচ্ছে রাঙামাটি জেলা। এই নিয়ে দেশের ৬৪ জেলায় করোনা ভাইরাস সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়লো। 

 

জানা যায়, রাঙামাটি থেকে নমুনা সংগ্রহ করে করোনা পরীক্ষার জন্য চট্টগ্রাম ভেটেনারী ও এনিম্যাল সা্ইন্সেস বিশ্ববিদ্যালয় ল্যাবে পাঠানো হয়। বুধবার এ ৪জনের দেহে করোনা পজিটিভ আসে।আক্রান্তরা সবাই রাঙামাটি শহরের। ৪ জনের মধ্যে ১ জন রিজার্ভ বাজারের ১নং পাথঘাটা, ১ জন দেবাশীষ নগরে ও অপর ২ জন রাঙামাটি জেনারেল হাসপাতাল এলাকার মোল্লা পাড়া বলে জানা গেছে। আক্রান্তদের মধ্যে রয়েছেন ৯ মাসের শিশু,১৯ বছরের যুবক,৩৮ বছরের নারী, ৫০ বছর বয়সী পুরুষ। তবে আক্রান্তরা বিদেশ ফেরত বা জেলার বাইরে থেকে এসেছেন তার বিস্তারিত তথ্য জানা যায়নি। অপর একটি সূত্র জানিয়েছে আক্রান্তরা সবাই রাঙামাটি জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। 

 

রাঙামাটি সিভিল সার্জন ডাঃ বিপাশ খীসা সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, রাঙামাটিতে ৪ জনের দেহে করোনা পজিটিভ পাওয়া গেছে। এ বিষয় নিয়ে জরুরী বৈঠক ডাকা হয়েছে। আক্রান্তদের সাথে যারা সংস্পর্শে এসেছেন তাদের খোজে বের করে ব্যবস্থা নেয়া হবে। 

 

জেলা প্রশাসক একেএম মামুনুর রশীদ বলেন, করোনায় আক্রান্ত ব্যক্তিদের বাড়ীসহ এলাকাগুলো লকডাউন করা হয়েছে। তবে আক্রান্তরা আগে থেকে জ¦রসহ অন্যান্য রোগে ভুগছিল কিন্তু গতকাল বুধবার রিপোর্ট আসার কারণে আক্রান্তদের কাছ থেকে নতুন করে আবারও  নুমনা সংগ্রহ করে পরীক্ষার জন্য ল্যাবে পাঠানো হয়েছে। এর কারণে  আক্রান্তদের নিজ নিজ বাড়ীতে  রেখে চিকিৎসা সেবা দেয়া হচ্ছে। 

 

উল্লেখ্য, রাঙামাটি  জেলার আগে খাগড়াছড়ি জেলায় গেল ২৯ এপ্রিল দীঘিণালা উপজেলার কামক্কোছড়া এলাকায় নারায়নগঞ্জ ফেরত পোশাক কর্মী এরশাদ চাকমা নামের এক যুবকের করোনা ভাইরাসের পজিটিভ আসে। তবে তার দেহে করোনার কোন লক্ষণ না থাকায় পুনরায় তার কাছ থেকে  দ্বিতীয় দফায় নমুনা সংগ্রহ করে  চট্টগ্রামের ল্যাবে পাঠানোর পর গেল ৩ মে করোনা পরীক্ষার রেজাল্ট নেগেটিভ আসে। এরপর তৃতীয় আবারও নমুনা সংগ্রহ করে পাঠানো হয়েছে। তবে রিপোর্ট ্খএর রেজাল্ট আসেনি।  

--হিলবিডি২৪/সম্পাদনা/সিআর.

উপদেষ্টা সম্পাদক : সুনীল কান্তি দে
সম্পাদক : দিশারি চাকমা
মোহাম্মদীয়া মার্কেট
কাটা পাহাড় লেন, বনরুপা
রাঙামাটি পার্বত্য জেলা।
ইমেইল : info@hillbd24.com
সকল স্বত্ব hillbd24.com কর্তৃক সংরক্ষিত