রোনাকালে বিউটি পার্লারে কর্মরত আদিবাসী নারীদের সার্বিক অবস্থা শীর্ষক আলোচনা সভা

Published: 21 Jun 2020   Sunday   

‘করোনাকালে বিউটি পার্লারে কর্মরত আদিবাসী নারীদের সার্বিক অবস্থা’ শীর্ষক অনলাইন আলোচনা সভা আইপিনিউজ ফেসবুক পেজে লাইভ অনুষ্ঠিত হয়।

 

বাংলাদেশ আদিবাসী নারী নেটওয়ার্ক এর সমন্বয়কারী ফাল্গুনী ত্রিপুরার স্বাক্ষরিত বিভিন্ন গণমাধ্যমে পাঠানো প্রেস বার্তায় বলা হয়, শনিবার বাংলাদেশ আদিবাসী নারী নেটওয়ার্ক এর আয়োজনে ও মিডিয়া পার্টনার আইপিনিউজ এর সহায়তায় এই অনলাইন সভা অনুষ্ঠিত হয়।

 

বাংলাদেশ আদিবাসী নারী নেটওয়ার্ক এর সদস্য সচিব  চঞ্চনা চাকমার সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় অংশ গ্রহন করেন বাংলাদেশ নারী প্রগতি সংঘের  নির্বাহী পরিচালক রোকেয়া কবির,মানুষের জন্য ফাউন্ডেশনের নির্বাহী পরিচালক শাহীন আনাম, সমাজতান্ত্রিক শ্রমিক ফ্রন্টের সভাপতি রাজেকুজ্জামান রতন, আইপিডিএস এর প্রোগ্রাম কো-অর্ডিনেটর তুলি লাবন্য ম্রং,  বিউটিশিয়ান সাবিনা রাংমা, বিউটিশিয়ান ও পার্লার মালিক কুহেলী আজিম, বিউটিশিয়ান এমেলিয়া মাজি।  সভা সঞ্চালনা করেন বাংলাদেশ আদিবাসী নারী নেটওয়ার্ক এর সমন্বয়কারী ফাল্গুনী ত্রিপুরা। 


রোকেয়া কবির বলেন,অপ্রাতিষ্ঠানিক খাতের মধ্যে বিউটি পার্লার অন্যতম, ফলে এ খাতের কর্মরত আদিবাসী নারীরা বেশি অসুবিধায় পড়ছে এ বৈশ্বিক মহামারি করোনার কারণে। সরকারের সহায়তা তাদেরকে বেশি প্রদান করা প্রয়োজন। মানুষের জন্য ফাউন্ডেশনের নির্বাহী পরিচালক শাহীন আনাম বলেন,বিউটিশিয়ানদের পরিসর নিয়ে খুব চিন্তায় আছি। শ্রম আইন অনুসারে কীভাবে সহযোগীতা পাওয়া যায় তা দেখতে হবে। বিউটি পার্লার প্রসারে আদিবাসী নারীদের ভূমিকা প্রশংসনীয়। আদিবাসী নারীরা শুধু বিউটি পার্লারে কাজ করবে সেটা না, অন্য পেশাও খুঁজতে হবে।  এক্ষেত্রে সরকারের সুদৃষ্টি দরকার।


সমাজতান্ত্রিক শ্রমিক ফ্রন্টের সভাপতি রাজেকুজ্জামান রতন বলেন,এ সংকটে আদিবাসী বিউটিশিয়ানরা আড়ালেই ছিলেন। বিউটিশিয়ানরা অন্যদের সাজালেও তাদের বেদনার কথা আমরা শুনিনি কখনো। তাদের থাকা, খাওয়া, নিরাপত্তা ইত্যাদি নিয়ে তাদেরকে ভাবতে হবে।


তুলি লাবন্য বলেন, বাংলাদেশে বিউটি পার্লার, সৌন্দর্য সেবাখাতে শ্রমিক হিসেবে কাজ করছে অধিকাংশ আদিবাসী নারী। দারিদ্রতা, সহজলভ্যতার কারণে আদিবাসী মেয়েরা এ পেশাকে অবলম্বন করে আর্থিক স্বচ্ছলতা আনয়নের জন্য।  করোনা মহামারী সময়ে তারা মানবেতর জীবন পার করছে। এখন তাদের বেতন বন্ধ, ঘর ভাড়া ও পরিবারের খাবারের সংকটে তাদের অনেক ঝামেলায় পড়তে হচ্ছে। সরকার এ খাতকে শিল্প হিসেবে ঘোষণা করেছে।

 

তিনি সরকারের সরকারের কাছে উক্ত ঘোষণাটি অবিলম্বে গেজেট আকারে প্রকাশ করা, মালিক ও আদিবাসী শ্রমিকদের আইনের আওতায় নিয়ে আসা, আদিবাসী বিউটিশিয়ানদের সুযোগ-সুবিধা প্রদান করাসহ কয়েকটি সুপারিশ তুলে ধরেন।
--হিলবিডি২৪/সম্পাদনা/সিআর.

উপদেষ্টা সম্পাদক : সুনীল কান্তি দে
সম্পাদক : সত্রং চাকমা

মোহাম্মদীয়া মার্কেট, কাটা পাহাড় লেন, বনরুপা, রাঙামাটি পার্বত্য জেলা।
ইমেইল : [email protected]
সকল স্বত্ব hillbd24.com কর্তৃক সংরক্ষিত