ঈদের ছুটিতে পর্যটকদের বরণ করতে রাঙামাটির পর্যটন প্রস্তুুত

Published: 10 Sep 2016   Saturday   
রাঙামাটি পর্যটনের ঝুলন্ত সেতু।

রাঙামাটি পর্যটনের ঝুলন্ত সেতু।

দেশের পরিস্থিতি স্বাভাবিক থাকায় এবার পবিত্র ঈদ-উল-আযহার ঈদের লম্বা ছূটিতে রাঙামাটি পর্যটন স্পটগুলোতে পর্যটকদের ঢল নামার সম্ভাবনা রয়েছে। ইতোমধ্যে রাঙামাটি শহরের হোটেল-মোটেলের অধিকাংশই রুম বকুড হয়ে গেছে।


সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, পবিত্র ঈদ-উল-আযহা উপলক্ষে দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে ভ্রমন পিপাসু পর্যটকরা ইটপাথুরের শহর ও যান্ত্রিকতার ক্লান্তি দূর করতে প্রতি বছর প্রকৃতির রাণী রাঙামাটির অপরুপ সৌন্দর্য্য উপভোগ করতে ছুটে আসেন। দেশের রাজনৈতিক পরিস্থিতি স্বাভাবিক বিরাজ করায় এবার ঈদের ছুটিতে পর্যটকদের ঢল নামার সম্ভাবনা রয়েছে।

 

ইতোমধ্যে রাঙামাটি শহরের হোটেল-মোটেলের অধিকাংশই রুম বকুড হয়ে গেছে। এর মধ্যে রাঙামাটি সরকারী পর্যটন মোটেলের আগামী ১১সেপ্টেম্বর থেকে ১৬সেপ্টেম্বর পর্ষন্ত সব রুম অগ্রিম বুকড রয়েছে। অপর অন্যতম বেসরকারী হোটেল সুপিয়ায় ইতোমধ্যে অধিংকাশই রুম বুকড হয়ে গেছে। এখন শুধু পর্যটকদের বরণ করে নেওয়ার পালা।


রাঙামাটি পর্যটনের আকর্যনীয় স্পটের মধ্যে রয়েছে ঝুলন্ত ব্রীজ, সুভলং ঝর্ণা, কাপ্তাই হ্রদ, ডিসি বাংলো, পুলিশের পলওয়েল পর্যটন, রাজবন বিহার,চাকমা রাজ বাড়ি, বালুখালী কৃষি খামার, টুক টুক ইকোভিলেজসহ আদিবাসী শান্ত সবুজ গ্রাম ও তাদের জীবনযাত্রা। এছাড়া বর্তমানে এ বর্ষা মৌসুমে রাঙামাটির প্রকৃতি নতুন রুপে সেজেসে। শুভলং ঝর্না তার পুরনো রুপ ফিরে পেয়েছে। তাই সবমিলিয়ে পর্যটকরা আত্বীয়-স্বজন কিংবা বন্ধু-বান্ধবদের সাথে নিয়ে এবার রাঙামাটির প্রকৃতির সৌন্দর্য্য অপন মনে উপভোগ করতে পারবেন।


হোটেল ডি মারিয়ার ম্যানেজার মোঃ শাহজাহান জানান, ঈদের লম্বা ছুটিতে তার হোটেলের বুকিং ভাল রয়েছে। তবে সরকারী সহযোগিতায় আরো নতুন নতুন পর্যটন স্পট গড়ে উঠলে তাহলে রাঙামাটিতে পর্যটকের সংখ্যা প্রচুর বৃদ্ধি পেতো।


শাইনিং হিল গেষ্ট হাউসের ম্যানেজার বাবুল দাশ বলেন, এক সপ্তাহ আগে তার গেষ্ট হাউসের সব রুম বুকড হয়েছে। অনেকে রুম চাচ্ছেন কিন্তু বকিং নেওয়া সম্ভব হচ্ছে না।


হোটেল সুপিয়ার ম্যানেজার জাহাঙ্গীর হাসান জানান, এবার ঈদের ছুটিতে তার হোটেলের অধিকাংশ রুম বুকড হয়েছে। এ হোটেলের পর্যটকদের জন্য নিরাপত্তাসহ যাবতীয় সুযোগ-সুবিধা রয়েছে।


রাঙামাটি সরকারী পর্যটন কমপ্লেক্স-এর পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ এএসআই মোঃ ফরহাদ বলেন, ঈদের ছুটিতে বেড়াতে আসা পর্যটকরা নির্বিঘ্নে চলাফেরা করতে পারেন সেজন্য পর্যটন স্পটগুলোতে বাড়তি নিরাপত্তা ব্যবস্তা নেওয়া হয়েছে।


রাঙামাটি সরকারী পর্যটন কমপ্লেক্সের ব্যবস্থাপক আলোক বিকাশ চাকমা বলেন,রাঙামাটি সরকারী পর্যটন মোটেলের আগামী ১১ সেপ্টেম্বর থেকে ১৬সেপ্টেম্বর সব রুম অগ্রিম বুকড হয়েছে। ঈদের ছুটির দিনে আবহাওয়া ভাল থাকরে রাঙামাটিতে আশানুরুপ পর্যটক আসার সম্ভাবনা রয়েছে।
--হিলবিডি২৪/সম্পাদনা/সিআর.

উপদেষ্টা সম্পাদক : সুনীল কান্তি দে
সম্পাদক : দিশারি চাকমা
মোহাম্মদীয়া মার্কেট
কাটা পাহাড় লেন, বনরুপা
রাঙামাটি পার্বত্য জেলা।
ইমেইল : info@hillbd24.com
সকল স্বত্ব hillbd24.com কর্তৃক সংরক্ষিত