পার্বত্যচুক্তি বাস্তবায়নের লক্ষে নৌকাকে জয়যুক্ত করার প্রত্যয়

Published: 14 Dec 2018   Friday   

শুক্রবার খাগড়াছড়ি উপজেলায়  বিভিন্ন শ্রেণী পেশার গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গের সাথে মতবিনিময় সভা করেছেন  পার্বত্য খাগড়াছড়ির ২৯৮ নং আসনের আওয়ামীলীগের মনোনীত প্রার্থী কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা।

 

দীঘিনালা শান্তিপুর উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে আয়োজিত সমাবেশে বক্তব্য রাখেন, খাগড়াছড়ি জেলা আওয়ামীলীগের সিনিয়র সহ সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা রণ বিক্রম ত্রিপুরা, দীঘিনালা উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান নব কমল চাকমা, দীঘিনালা উপজেলা রিষদেরর ভাইস-চয়ারম্যান সুসময় চাকমা, জেলা পরিষদ সদস্য এ্যাডভোকেট আশুতোষ চাকমা, শতরুপা চাকমা, জেলা মহিলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ক্রসাইঞো চৌধুরী, দীঘিনালা সরকারী ডিগ্রী কলেজের উপাধ্যক্ষ তরুণ কান্তি চাকমা, দীঘিনালা ইউপি চেয়ারম্যান প্রজ্ঞান চাকমা, সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান শাক্যমনি চাকমা, দীঘিনালা উপজেলা কার্বারী এসোসিয়েশনের সভাপতি হেমাব্রত চাকমা, দীঘিনালা প্রেসক্লাবের সভাপতি জাহাঙ্গীর আলম রাজু, উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক বিদ্যুৎ বরণ চাকমা, ভারত প্রত্যাগত শরনার্থী কল্যাণ সমিতির নেতা আনন্দ মোহন চাকমা, বাবুছড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান সন্তোষ জীবন চাকমা, দীঘিনালা উপজেলা উচ্চ বিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির প্রতিনিধি উষা আলো চাকমা, চোংড়াছড়ি উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ঝিমিত চাকমা প্রমূখ। মত বিনিময় সভায় অন্যদের মধ্যে এসময় বৌদ্ধ ধর্মীয় কল্যাণ ট্রাস্ট-এর ট্রাস্টি বাসন্তী চাকমা, জেলা মহিলা আওয়ামীলীগের সা: সম্পাদক শাহিনা আক্তার, জেলা আওয়ামীলীগ-এর সাংগঠনিক সম্পাদক অধ্যাপক সত্যজিত চৌধুরী,  মহালছড়ি উপজেলা আওয়ামীলীগ নভাপতি অধ্যাপক নীলোৎপল খীসা, এড. সুপাল চাকমা, উদালবাগান উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক দেবতরু চাকমা, সুগতপ্রিয় চাকমা, মতবিনিময় সভায় উপজেলার হেডম্যান কার্বারী ছাড়াও বিভিন্ন বিদ্যালয়ের শিক্ষকরা উপস্থিত ছিলেন।

 

এদিকে এই সভাকে কেন্দ্র করে বৃহস্পতিবার রাতে এবং দুপুর পর্যন্ত একটি বিশেষ আঞ্চলিক দলের পরিচয়ে বিভিন্ন ব্যক্তি নানাভাবে ভয়ভীতি প্রদর্শন করারও অভিযোগ পাওয়া গেছে। তবে শেষ তক দীঘিনালা উজেলার সব শ্রেণী-পেশার গুরুত্বপূর্ন ব্যক্তিরা সমাবেশে যোগ দিয়ে নৌকা’র প্রার্থী কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা’র প্রতি দৃঢ় সমর্থন ব্যক্ত করেন।

 

সমাবেশে উপজেলার নেতৃস্থানীয় বিশিষ্টজনরা বলেছেন, বর্তমান সরকারের আমলেই পার্বত্যচুক্তি সম্পাদন হয়েছে। চুক্তি বাস্তবায়নের অংশ হিসেবে পার্বত্য চট্টগ্রাম মন্ত্রণালয়, পার্বত্য চট্টগ্রাম আঞ্চলিক পরিষদ, পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ড এবং তিন পার্বত্য জেলা পরিষদ-এর ক্ষমতায়নে আইনী ভিত্তি সুদৃঢ় হয়েছে। শিক্ষা-স্বাস্থ্য-সড়কসহ অবকাঠামো খাতে অভূতপূর্ব উন্নয়ন সাধিত হয়েছে। তাই এবারের নির্বাচনেও পার্বত্যচুক্তি বাস্তবায়নের লক্ষে পাহাড়ি-বাঙালি মিলে নৌকাকে জয়যুক্ত করতে হবে।

 

মতবিনিময় সভায় বক্তারা বলেন, ‘‘জাতি টিকে থাকার জন্য প্রধান বাহন তার ভাষা। সেই ভাষাকে স্বীকৃতি দিয়েছে বর্তমান আওয়ামীলীগ সরকার। আজ চাকমা ভাষাসহ ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠির সকল ভাষায় সরকারের প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রাক-প্রাথমিক শ্রেণির পাঠ্যক্রমে অর্ন্তভুক্ত হয়েছে। অস্তিত্ব বিলীন হতে চাকমা ভাষাকে তুলে এনে ভাষার মর্যাদা দিয়েছেন বর্তমান প্রধানমন্ত্রী। অতীতের কোন সরকারই জুম্ম জনগনের কল্যানের জন্য কাজ করে নাই। শুধু বর্তমান সরকারই চাকমা জাতি তথা ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠির উন্নয়নের জন্য কাজ করেছেন।

 

এসময় বক্তারা আরো বলেন, শান্তিচুক্তি স্বাক্ষরের পর আজ ২১ বছর যাবত ভারত প্রত্যাগত শরণার্থীরা বর্তমান সরকারের রেশনিং সুবিধা পেয়ে আসছে। তাই আমাদের এখুনি ভাবতে হবে! সিদ্ধান্ত নিতে হবে! কোন সরকার আমাদের জুম্ম জনগনের জন্য মঙ্গল হবে? তাই জুম্ম জাতির অস্তীত্ব রক্ষার্থে সবাইকে ঐক্য বদ্ধ হয়ে, খাগড়াছড়ি ২৯৮ নং আসনের আওয়ামীলীগ মনোনীত প্রার্থী কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরাকে নৌকা প্রতীকে ভোট দিয়ে  বিপুল ভোটে জয়যুক্ত করে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগকে ক্ষমতায় আনতে হবে।

--হিলবিডি২৪/সম্পাদনা/সিআর.

উপদেষ্টা সম্পাদক : সুনীল কান্তি দে
সম্পাদক : দিশারি চাকমা
মোহাম্মদীয়া মার্কেট
কাটা পাহাড় লেন, বনরুপা
রাঙামাটি পার্বত্য জেলা।
ইমেইল : info@hillbd24.com
সকল স্বত্ব hillbd24.com কর্তৃক সংরক্ষিত