পাহাড়ী-বাঙালীর মাঝে স্থায়ী শান্তি প্রতিষ্ঠার জন্য সিংহ মার্কায় বিজয় বিকল্প নেই

Published: 19 Dec 2018   Wednesday   

বিগত সংসদ নির্বাচনে পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতির সমর্থিত প্রার্থী হিসেবে সংসদ সদস্য নির্বাচীত হয়ে পাহড়ের বসবাসরত অভাব- অভিযোদের কথা সংসদের বলার সুযোগ পেয়েছি। দেশে-বিদেশে পার্বত্য চট্টগ্রামে স্থায়ী শান্তি প্রতিষ্ঠার জন্য চুক্তি পুর্নাঙ্গ বাস্তবায়নের কথা বার বার বলে যাচ্ছি। চুক্তি পুর্নাঙ্গ বাস্তবায়নে ও পাহাড়ে স্থায়ী শান্তি প্রতিষ্ঠার জন্য আগামী সংসদ নির্বাচনে সিংহ মার্কায় বিজয়ের বিকল্প নেই।


মঙ্গলবার জুরাছড়ি যক্ষা বাজারে জনসংহতি সমিতির কর্তৃক আয়োজিত জনসংযোগ ও সমাবেশে রাঙামাটি ২৯৯নং আসনের সিংহ মার্কার জেএসএসের সমর্থিত স্বতন্ত্র প্রার্থী ঊষাতন তালুকদার একথা বলেন।


সাবেক জনসংসংহতি সমিতির সদস্য যশোস্কর দেওয়ানের সভাপতিত্বে জনসংযোগ ও সমাবেশে জেএসএসের কেন্দ্রিয় কমিটির ভূমি ও কৃষি বিষয়ক সম্পাদক সিংলা মং চাক, উপজেলা কমিটির সহ-সভাপতি উদয় জয় চাকমা, যুব ও ছাত্র বিষয়ক সম্পাদক রিটন চাকমাসহ জনসংহতি সমিতি, মহিলা সমিতি, হিলউইমেন্স ফেডারেসনের কেন্দ্রি-জেলা-উপজেলার নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।


ঊষাতন তালুকদার স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতৃবৃন্দদের সমালোচনা করে বলেন, আওয়ামী লীগ সংগঠন দল হিসেবে ভাল কিন্ত স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতৃবৃন্দের ভুল তথ্যে কেন্দ্রে প্রদানের কারণে জনসংহতি সমিতির সাথে বিরোধ সৃষ্টি করা হচ্ছে।


তিনি আরো বলেন, দীপংকর তালুকদার নির্বাচন আচারন বিধি লংগন করে প্রচারনা চালাচ্ছেন। তারা প্রতি নিয়ত পাহাড়ের নির্বাচনী পরিবেশ বিনষ্টের জন্য নিরাপত্তাহীন শ্বাসরুদ্ধকর এক নাজুক পরিস্থিতি তৈরীর অপচেষ্টা চালাচ্ছে। জনসংহতি সমিতিকে মিথ্যে অপবাদ দিয়ে জনগনকে বিভ্রত করছেন। দীপংকর তালুকদার প্রতিটি সমাবেশে মিথ্যেচার করে যাচ্ছে। “আমি বিগত সংসদ নির্বাচনে


এমপি নির্বাচীত হয়ে একটি ইটও পাহাড়ে বসাতে পারিনি। যা করেছে আওয়ামী লীগ সরকার। অথচ আমি এমপি নির্বাচীত হয়ে পার্বত্য এলাকায় ২০ কোটি টাকা ব্যয়ে বিভিন্ন রাস্তা-ঘাট উন্নয়ন করা হয়েছে।
--হিলবিডি২৪/সম্পাদনা/সিআর.

উপদেষ্টা সম্পাদক : সুনীল কান্তি দে
সম্পাদক : দিশারি চাকমা
মোহাম্মদীয়া মার্কেট
কাটা পাহাড় লেন, বনরুপা
রাঙামাটি পার্বত্য জেলা।
ইমেইল : info@hillbd24.com
সকল স্বত্ব hillbd24.com কর্তৃক সংরক্ষিত