আলীকদমে সড়ক দূর্ঘটনায় ২ জন নিহত ও আহত ১৩ জন

Published: 13 Oct 2019   Sunday   

বান্দরবানের আলীকদ-থানচি সড়কের ১৫ কিলােমিটার এলাকায় সড়ক দূর্ঘটনায় দুই জন নিহত হয়েছে। এ সময় গুরুতর আহত হয়েছেন আরো ১৩ জন যাত্রী ।  রোববার সকাল সেড়ে ১১টার সময় থানচি থেকে আলীকদমে আসার পথে এ দূর্ঘটনা ঘটে।

 

আহতরা জানান, পনেরজন যাত্রী নিয়ে দূর্ঘটনার পৌঁনে এক ঘন্টা আগে থানচি থেকে আলীকদমের উদ্দ্যশ্যে ছাড়া হয়। গাড়িটি যখন খাড়া একটি পাহাড়ি পথ বেয়ে উঠতে গিয়ে হঠাৎ পিছনের দিকে নেমে চলে আসায় এ দুর্ঘটনা ঘটে । এ সময় চালক ও হেলফার গাড়ি থেকে লাফি দিয়ে পালিয়ে যায় । এ সময় গাড়িটি নিচের দিকে নামতে নামতে রাস্তার পাশে ড্রেনের ওয়ালের সাথে ধাক্কা লেগে উল্টে গেলে ঘটনাস্থলে পেকুয়া উপজেলার টৈইটং এলাকায় মােঃ দিদার হােসেন ( ২৫ ) নিহত হন ।

 

পরে খবর পেয়ে আলীকদম ফায়ার সার্ভিস , পুলিশ ও সেনাবাহিনী ঘটনাস্থলে গিয়ে আহতদের উদ্ধার করে আলীকদম উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসেন। হাসপাতালে আনার পর আব্দুর রশিদ এর ছেলে আবু তালেব ( ২২ ) মারা যান়।তাঁর বাড়ি পেকুয়া উপজেলার টৈঁটং এলাকায়।

 

দূর্ঘটনায় যারা আহতরা হলেন,  মােস্তাক আহামদ এর ছেলে নুরুল ইসলাম ( ৩০ ), আবু তাহেরের এর ছেলে জিয়াবুল কবির ( ২৩ ) , আব্দুর রশিদ এর ছেলে মােঃ তালেব ( ২২ ) , দুলাল মিয়ার ছেলে মােঃ জয়নাল আবেদীন ( ২৮ ) , মৃত শমসের আলম এর ছেলে মােঃ আলী ( ২৫ ) , মৃত নজির আহামদ এর ছেলে আবু তাহের ( ৫২ ) , মােঃ শাহ আলম এর ছেলে মােঃ জোবায়ের ( ২৮ ) নুরুল হক এর ছেলে মােঃ শহিদুল্লাহ ( ৩২ ) , নুরুল ইসলাম এর ছেলে রেজাউল করিম ( ৪৫ ) , বদর আলম এর ছেলে জাফর আহমদ ( ৪৫ ) , জফুর আহমদ এর ছেলে আছত আলী ( ৩০ ) , নুরুল ইসলাম এর ছেলে আব্দুর রশিদ ( ২১ ) , আলী হােসেন এর ছেলে মােঃ কাইছার ( ২২ )।  এদের সবার বাড়ি পেকুয়া উপজেলার টৈটং এলাকায়। এছাড়া আহত আব্দুর রশিদ এর ছেলে মােঃ আবু তাহের ( ৪৫ ) এর বাড়ি বাঁশখালী উপজেলায়।

 

আলীকদম হাসপাতালের কর্তব্যরত ডাক্তার কামরুল হাসান বলেন , সড়ক দুর্ঘটনার কবলে পড়েন মােট ১৫ জন । তার মধ্যে একজন ঘটনাস্থলেই মারা যান।আরেকজন হাসপাতালে আনার পর মারা যান । বাকি ১৩ জনকে আমরা সর্বাত্মক ভাবে জিকিৎসা দিচ্ছি। আহতের মধ্যে চারজন আশঙ্কাজন। তাই তাদের চমেকে রেফার করা হয়েছে।

 

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে আলীকদম থানার অফিসার্স ইনচার্জ কাজী রকিব উদ্দিন বলেন , সড়ক দূর্ঘটনায় দুইজন নিহত ও ১৩জন আহত হয়েছে। গাড়িটির কোন কাগজপত্র ছিলনা। চালক ও হেলফার পালিয়ে যাওয়ায় আমরা ধরতে পারিনি । মূলতঃ চালকের অদক্ষতা ও দ্রুত গতিতে গাড়ি চালানাের কারণেই এ  ঘটনা ঘটেছে ।

--হিলবিডি২৪/সম্পাদনা/সিআর.

উপদেষ্টা সম্পাদক : সুনীল কান্তি দে
সম্পাদক : দিশারি চাকমা
মোহাম্মদীয়া মার্কেট
কাটা পাহাড় লেন, বনরুপা
রাঙামাটি পার্বত্য জেলা।
ইমেইল : info@hillbd24.com
সকল স্বত্ব hillbd24.com কর্তৃক সংরক্ষিত