রাঙামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদের মাসিক সভা অনুষ্ঠিত

Published: 19 Jan 2020   Sunday   

জেলা তথা দেশের উন্নয়নে স্ব-স্ব অবস্থান থেকে সবাইকে এক হয়ে কাজ করার আহ্বান জানিয়েছেন রাঙামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান বৃষ কেতু চাকমা।

 

 তিনি বলেলন, সৌহার্দ্য ও সম্প্রীতি বজায় রেখে আমাদের সকলকে সম্মিলিতভাবে এদেশকে এগিয়ে নিতে হবে। বর্তমান সরকারের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার স্বপ্ন দেশকে উন্নত দেশে রূপান্তর করতে আমাদের সবাইকে নিরলসভাবে কাজ করতে হবে। তবেই দেশ এগিয়ে যাবে। 

 

রোববার রাঙামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদের মাসিক সভায় সভাপতির বক্তব্যে পরিষদ চেয়ারম্যান এসব কথা বলেন। 

 

পরিষদের জনসংযোগ কর্মকর্তা অরুনেন্দু ত্রিপুরা’র পরিচালনায় অনুষ্ঠিত সভায় জেলা পরিষদের সদস্য ত্রিদীব কান্তি দাশ, সদস্য সাধন মনি চাকমা, সদস্য থোয়াই চিং মারমা, সদস্য স্মৃতি বিকাশ ত্রিপুরা, সদস্য সান্তনা চাকমা, সদস্য মনোয়ারা আক্তার জাহান, সদস্য রেমলিয়ানা পাংখোয়া’সহ হস্তান্তরিত বিভাগের কর্মকর্তাগণ উপস্থিত ছিলেন।

 

সভায় সিভিল সার্জন ডা: শহীদ তালুকদার বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর স্বদিচ্ছা ও আন্তরিকতায় রাঙামাটিতে পদায়নকৃত ৩৯তম বিসিএস এর ৫৬জন নবীন চিকিৎসক যোগদান করায় চিকিৎসা ক্ষেত্রে সাধারণ জনগণ আরো বেশী সেবা পাবে। বর্তমানে জেলায় ১১৭জন চিকিৎসক কর্মরত রয়েছে। তিনি বলেন, এর মধ্যে মাঠ পর্যায়ে কাজ করার লক্ষ্যে স্বাস্থ্য সহকারী নিয়োগও সম্পন্ন হয়েছে। বিগত বছরগুলোর তুলনায় গত ২০১৯ সালে জেনারেল হাসপাতাল ও উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ডেলিভারী রোগীর সংখ্যা বৃদ্ধি পেয়েছে। এছাড়া গত বছর ৩৬ হাজার শিশুকে সেবা প্রদান করা হয়েছে এবং এবারে শিশুদের ভিটামিন এ প্লাস ক্যাম্পেইনে ৯৯.২২% অগ্রগতি হয়েছে।

 

স্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তরের সহকারী প্রকৌশলী মোঃ মেহেদী হাসান জানান, বর্তমানে সপ্তম অপারেশন প্লানের আওতায় রাঙ্গামাটির ১০টি উপজেলার মধ্যে ৫টি উপজেলার স্বাস্থ্যকেন্দ্রগুলো ৫০ বেডে উন্নীত করার কাজ চলছে। এর মধ্যে রাজস্থলী ও কাপ্তাই উপজেলার নব নির্মিত ভবন রাঙ্গামাটি সংসদ সদস্যের মাধ্যমে উদ্বোধন করে বুঝিয়ে  দেওয়া হয়েছে। বাকীগুলো পর্যায়ক্রমে করা হবে। তিনি আরো জানান, মুজিববর্ষকে সামনে রেখে জেলার ২টি উপজেলায় কমিউনিটি ক্লিনিক নির্মাণ করা হচ্ছে যা মুজিববর্ষের দিন উদ্বোধন করা হবে।

 

জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী অনুপম দে জানান, পিইডিপি-৪ এর আওতায় প্রত্যেকটি সরকারী প্রাইমারি স্কুলে স্যানিটেশন নিশ্চিত করার লক্ষ্যে পানি সরবরাহ ও পয়ঃনিষ্কাশনের ব্যবস্থা গ্রহণের কার্যক্রম অব্যাহত রয়েছে। 

 

জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মোঃ খোরশেদ আলম জানান, ২০২০ শিক্ষাবর্ষে নতুন বই এবং নৃ-গোষ্ঠী শিক্ষার্থীদের পাঠ্যবই বিতরণ করা হয়েছে। পরিষদের চেয়ারম্যান মহোদয় ১জানুয়ারি শিক্ষার্থীদের মাঝে বই বিতরণের মাধ্যমে বই উৎসবের উদ্বোধন করেন।

 

যুব উন্নয়ন অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক (অঃদাঃ) মোঃ শহীদুল ইসলাম বলেন, আত্নকর্মসংস্থান সৃষ্টির লক্ষ্যে বেকার যুবদের চলতি মাস থেকে যুব উন্নয়নে বিভিন্ন ট্রেডে ৫৫৫ জন প্রশিক্ষণাথী ভর্তি করা হয়েছে।

 

হর্টিকালচার সেন্টার বালুখালী, বনরুপা, নানিয়ারচর, বালুখালী, লংগদু, আসামবস্তী ও কাপ্তাইয়ের উদ্যান তত্ববিদরা জানান, নার্সারিতে টার্গেট অনুযায়ী বিভিন্ন প্রজাতি গাছের চারাকলাম উৎপাদন, মজুদ ও বিক্রয় কার্যক্রম চলছে।

--হিলবিডি২৪/সম্পাদনা/সিআর.

 

উপদেষ্টা সম্পাদক : সুনীল কান্তি দে
সম্পাদক : দিশারি চাকমা
মোহাম্মদীয়া মার্কেট
কাটা পাহাড় লেন, বনরুপা
রাঙামাটি পার্বত্য জেলা।
ইমেইল : info@hillbd24.com
সকল স্বত্ব hillbd24.com কর্তৃক সংরক্ষিত