• Hillbd newsletter page
  • Hillbd rss page
  • Hillbd twitter page
  • Hillbd facebook page
সর্বশেষ
রাঙামাটিতে ৫দিনব্যাপী হস্তশিল্প পন্য তৈরী বিষয়ক প্রশিক্ষণ শুরু                    খাগড়াছড়ি সাংবাদিক নেতা নুরুল আজম জামিনে মুক্ত                    রাঙামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদের মাসিক সভা অনুষ্ঠিত                    খাগড়াছড়িতে শিক্ষাবৃত্তি ও শীতবস্ত্র প্রদান অনুষ্ঠানে এমপি কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা                    রাঙামাটিতে একটি বাড়ি একটি খামারের ৩দিন ব্যাপী প্রশিক্ষণ কর্মশালা                    সঙ্কটে রাঙমাটি চারুকলা একাডেমী, নেই সরকারি পৃষ্ঠপোষকতা                    কাপ্তাইয়ে দু`দিনব্যাপী জাতীয় শিশু পুরস্কার প্রতিযোগিতা শুরু                    খাগড়াছড়িতে দুর্বৃত্তের গুলিতে ইউপিডিএফ কর্মী নিহত                    বান্দরবানে বম সম্প্রদায়ের সেন্টেনারী উৎসব                    রাঙামাটিতে রেড ক্রিসেন্ট ইউনিটের শীতবস্ত্র বিতরণ                    রামগড়ে শীতার্ত গরীব-দুস্থদের চট্টগ্রাম রামকৃষ্ণ মিশনের শীতবস্ত্র বিতরণ                    রাঙামাটিতে তিন দিন ব্যাপী নাট্য উৎসব শুরু                    লামায় উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামীলীগ প্রার্থী দলীয়ন মনোনয়পত্র বিতরণ শুরু                    খাগড়াছড়ির শীতার্ত মানুষের মাঝে উষ্ণতা ছড়ালো চট্টগ্রামের ‘পজিটিভ থিংকার্স’                    খাগড়াছড়িতে অবসরপ্রাপ্ত কৃষি কর্মকর্তা গোপাল কৃষ্ণ ত্রিপুরা’র মৃত্যুতে স্মরণসভা                    খাগড়াছড়ির নতুনকুঁড়ি ক্যান্ট: হাইস্কুল-এর বার্ষিক ক্রীড়া পুরস্কার বিতরণ                    স্বামীকে ফিরে পাওয়ার জন্য ছেলের অপহরণ নাটক সাজালেন মা                    পানছড়িতে সমমনা শিক্ষকগ্রুপের ব্যাডমিন্টন প্রতিযোগিতায় বিন্দু-প্রিয়া চ্যাম্পিয়ন                    খাগড়াছড়িতে অস্ত্র, গুলি ও নগদ টাকাসহ ইউপিডিএফ সদস্য আটক                    খাগড়াছড়িতে সেনাবাহিনীর উদ্যোগে শীতবস্ত্র ও খেলাধুলার সামগ্রী বিতরণ                    কাপ্তাইয়ে জেলা প্রশাসকের বিভিন্ন স্কুল,উপজেলা ও থানা পরিদর্শন                    
 

খাগড়াছড়িতে শিশুতোষ দ্বি-ভাষিক বই বিষয়ক স্থানীয় পর্যায়ে অধিপরামর্শ সভা

স্টাফ রিপোর্টার,খাগড়াছড়ি : হিলবিডি টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published: 13 Dec 2018   Thursday

বৃহস্পতিবার খাগড়াছড়িতে “শিশুতোষ দ্বি-ভাষিক বই বিষয়ক স্থানীয় পর্যায়ে অধিপরামর্শ সভা” অনুষ্ঠিত হয়েছে।


জাবারাং কল্যাণ সমিতির “বাংলাদেশ চিলড্রেন বুক ইনিসিয়েটিব (বিসিবিআই)” প্রকল্পের আওতায় খাগড়াছড়ির পর্যটন মোটেলের হল রুমে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান কংজরী চৌধুরী । জাবারাং কল্যাণ সমিতির নির্বাহী পরিচালক মথুরা বিকাশ ত্রিপুরার সভাপতিত্বে, বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলা পরিষদের সম্মানীত সদস্য জুয়েল চাকমা, জেলা সহকারী প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মো: আব্দুল হাই এবং সেভ দ্য চিলড্রেন এর বিসিবিআই প্রকল্পের ম্যানেজার দেবপ্রিয় চাকমা । আলোচনা সভায় আরো উপস্থিত ছিলেন, রামগড়, মানিকছড়ি, লক্ষীছড়ি এবং মহালছড়ি উপজেলার সকল উপজেলা শিক্ষা অফিসার, সহকারী উপজেলা শিক্ষা অফিসার, উপজেলা রিসোর্স সেন্টারের ইন্সট্রাক্টরবৃন্দ, প্রকল্পভূক্ত বিদ্যালয়সমূহের শিক্ষক প্রতিনিধি এবং বিদ্যালয় ব্যবস্থাপনা কমিটির প্রতিনিধিরা ।


আলোচনা সভার প্রারম্ভে শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন জাবারাং এর প্রকল্প সমন্বয়কারী দয়ানন্দ ত্রিপুরা । পরে সেভ দ্য চিলড্রেন এর প্রকল্প ম্যানেজার জনাব দেবপ্রিয় চাকমা প্রকল্পের কার্যক্রমের তথ্য উপস্থাপন করেন । তিনি প্রকল্পের লক্ষ্য, উদ্দেশ্য, কার্যক্রম, বেনিফিশিয়ারী এবং অধিপরামর্শ সভার উদ্দেশ্য তুলে ধরেন।


দেবপ্রিয় চাকমার উপস্থাপনার পর প্রকল্প কার্যক্রম বাস্তবায়নে সম্পৃক্ত হওয়ার মাধ্যমে প্রাপ্ত অভিজ্ঞতা তুলে ধরেন, মহালছড়ি উপজেলার যাদুগানালা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মিজ আনাই মারমা, মহালছড়ি উপজেলার এপিবিএন সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো: ইকবাল আহম্মেদ প্রমুখ। রামগড়ের ইউআরসি ইন্সট্রাক্টর মো: মাহবুবুর রহমান ইত্যাদি গ্রন্থ প্রকাশকের প্রতিনিধি প্রকাশক আদিত্য অন্তর বলেন, দ্বি-ভাষিক বই প্রকাশ করা একটি ব্যতিক্রমী উদ্যোগ। এ উদ্যোগকে সফল করার জন্য আমরা প্রকাশক হিসেবে সম্পৃক্ত হওয়ার সুযোগ পেয়েছি । এ ক্ষেত্রে কিছু চ্যালেঞ্জ রয়েছে । যেমন, দ্বি-ভাষিক বইয়ে স্থানীয় লেখক পর্যাপ্ত নেই। বই এডিট করার ক্ষেত্রে সমস্যা । উল্লেখিত সমস্যাসমূহ যদি উত্তোরণ করা যায়, তাহলে দ্বি-ভাষিক বিভিন্ন বই প্রকাশ সহজ হবে।
জেলা পরিষদের সম্মানীত সদস্য জুয়েল চাকমা বলেন, এ প্রকল্পের মাধ্যমে দ্বি-ভাষিক গল্পের বইয়ে স্থানীয় পর্যায়ের অনেক বিষয়বস্তু উপস্থাপন করা হয়েছে। এ বিষয়গুলো স্থানীয় মানুষকে অনুপ্রাণিত করবে ।

 

তিনি উল্লেখ করেন, গল্পের মধ্যে বাংলাদেশ জাতীয় ফুটবল দলের সদস্য খাগড়াছড়ি জেলার দু’বোন আনুচিং ও আনাই এর গল্প সন্নিবেশ করা হয়েছে যা আমাদেশ স্থানীয় জনগন ও নতুন প্রজন্মকে অনুপ্রাণিত করবে । পাশাপাশি তিনি খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলার লক্ষীছড়ি উপজেলার প্রত্যন্ত এলাকা থেকেও মনিকা চাকমা নামে একজন কিশোরী জাতীয় দলে ফুটবল খেলছেন বলে তিনি উল্লেখ করেন এবং তার সফলতার কাহিনীও গল্পের বইয়ে তুলে ধরার জন্য তিনি সকলের দৃষ্টি আকর্ষণ করেন ।


প্রধান অতিথির বক্তব্যে খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান কংজরী চৌধুরী বলেন, জাবারাং সেভ দ্য চিলড্রেন এর অর্থায়নে “বাংলাদেশ চিলড্রেন বুক ইনিসিয়েটিব” প্রকল্পের আওতায় প্রকল্পভূক্ত বিদ্যালয়ে শিক্ষার্থীদের পঠন দক্ষতা বৃদ্ধি করার জন্য যে কার্যক্রম বাস্তবায়ন করছে তা অত্যন্ত প্রসংসার দাবী রাখে । প্রকল্পের সাথে সংশ্লিষ্ট অংশগ্রহনকারীদের বক্তব্যের মাধ্যমে জানতে পারলাম, এ প্রকল্পের কার্যক্রমের ফলে আমাদের শিশুরা সম্পুরক পঠন সামগ্রী তথা বিভিন্ন ধরণের শিশুতোষ বই পড়ার সুযোগ পাচ্ছে। আমি মনে করি, এ উদ্যোগের মাধ্যমে আমাদের শিক্ষার্থীদের পঠন দক্ষতা বৃদ্ধি পাবে। আর শিক্ষার্থীদের পঠন দক্ষতা বৃদ্ধি পেলে শিক্ষার্থীদের মানসম্মত শিক্ষা অর্জনের পথ সুগম হবে । আর মানসম্মত শিক্ষা নিশ্চিত করা গেলে আমাদের নতুন প্রজন্ম মানব সম্পদে পরিনত হবে ।


তিনি আরো বলেন, এ প্রকল্পের কার্যক্রম ২০১৮ সালের মধ্যে শেষ হবে । তিনি বলেন, প্রকল্পের কার্যক্রম শেষ হলেও জেলার প্রাথমিক বিদ্যালয়সমুহে এ প্রকল্পের আওতায় তৈরিকৃত সহায়ক শিক্ষা উপকরণসহ আরো শিক্ষা উপকরণ জেলার প্রাথমিক বিদ্যালয়সমূহে সরবরাহ করার জন্য প্রয়োজন উদ্যোগ গ্রহন করবেন বলে প্রতিশ্রুতি দেন । পাশাপাশি তিনি জেলার মানসম্মত শিক্ষা নিশ্চিতকরণে সংশ্লিষ্ট সকলকে নিজ নিজ অবস্থান থেকে যথাযথ দায়িত্ব পালনের জন্য সকলের প্রতি আবহবান জানান এবং শিক্ষা সংশ্ল্রিষ্ট যে কোন কার্যক্রমে তার পক্ষ থেকে সার্বিক সহযোগিতা থাকবে বলে তিনি প্রতিশ্রুতি দেন। পাশাপাশি তিনি সেভ দ্য চিলড্রেনসহ অন্যান্য দাতাসংস্থাসমূহকেও জেলার শিক্ষার মান উন্নয়নে বিভিন্ন কর্মসূচি নিয়ে এগিয়ে আসার জন্য আহবান জানান।


উল্লেখ্য, অধিপরামর্শ সভার মূল উদ্দেশ্য ছিল, মাঠপর্যায়ে সম্পুরক পঠনসামগ্রী মাঠপর্যায়ে সম্পূরক পঠনসামগ্রী (দ্বি-ভাষিক বইসহ) ব্যবহার বাড়াতে স্থানীয় নীতি নির্ধারকদের পরামর্শ গ্রহণ, স্থানীয় ভাষায় সম্পূরক পঠনসামগ্রীর প্রয়োজনীয়তা অনুধাবন, ভাষাগত কারণে সৃষ্ট শিক্ষা বৈষম্য দূরীকরণ ও শিক্ষার সমসুযোগ তৈরি, মানসম্মত শিশুতোষ বই এর চাহিদার বিকাশ ঘটানো, মানসম্পন্ন গল্পের বই সংগ্রহ ও সরবরাহ বাড়ানো, শ্রেণিকক্ষ ও বাড়িতে গল্প বই ব্যবহার করার জন্য শিক্ষার্থী, শিক্ষক এবং অভিভাবকদেরকে আগ্রহ তৈরি ও উৎসাহ যোগানো, সম্পূরক পঠনসামগ্রীর চাহিদা বৃদ্ধি এবং মান নিশ্চিত করার জন্য স্থানীয় অংশীজনদের পরামর্শ গ্রহণ এবং শিশুতোষ গল্পের বই প্রকাশনা শিল্প শক্তিশালীকরণ (প্রকাশক, লেখক, আঁকিয়ে) বিষয়ে আলোচনা ।
--হিলবিডি২৪/সম্পাদনা/সিআর.

এই বিভাগের সর্বশেষ
আর্কাইভ