• Hillbd newsletter page
  • Hillbd rss page
  • Hillbd twitter page
  • Hillbd facebook page
সর্বশেষ
বিটিআরসি’র থেকে ২৮টি পাড়া কেন্দ্রে ডিজিটাল ক্লাসরুম উপকরণ বিতরণ                    রাজস্থলীতে লিগ্যাল এইডের সমন্বয় সভা ও মীমাংসা বৈঠক                    রাঙামাটিতে স্কুল ছাত্রীকে ধর্ষনের মামলায় প্রধান শিক্ষককের যাবজ্জীবন                    কাপ্তাই বিএন স্কুল এন্ড কলেজ এসএসতিতে এবারও শ্রেষ্ঠত্ব ধরে রাখলো                    এসএসসিতে রাঙামাটিতে জিপিএ-৫ বৃদ্ধি পেলেও পাশের সংখ্যা কমেছে                    বিলাইছড়িতে এবারও এসএসসিতে এগিয়ে ফারুয়া উচ্চ বিদ্যালয়, পাশের হার ৯৪.৫৫শতাংশ                    চুক্তি বাস্তবায়নে রোডম্যাপ ঘোষনার দাবীতে রাঙামাটিতে পিসিপির বিক্ষোভ-সমাবেশ                    রাঙামাটি হাসপাতালে অস্বাভাবিক বড় মাথা নিয়ে নবজাতকের জন্ম                    আওয়ামীলীগকে নিশ্চিহৃ করতে চায় আঞ্চলিক দলগুলো-দীপংকর তালুকদারএমপি                    কাউখালীতে সেনাবাহিনীর ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্পিং                    রাঙামাটি জেলা উন্নয়ন কমিটির সভা অনুষ্ঠিত                    জুরাছড়িতে স্বাস্থ্য বিভাগের মাসিক সমন্বয় সভা অনুষ্ঠিত                    রাবিপ্রবির কম্পিউটার সায়েন্স এন্ড ইঞ্জিনিয়ারিং এবং ম্যানেজমেন্ট দিবস পালন                    রাঙ্গুনিয়ায় সন্তানকে বিষ প্রয়োগে হত্যার চেষ্টা বাবার বিরুদ্ধে                    রাঙামাটিতে নানান কর্মসূচির মধ্য দিয়ে এম এন লারমার মৃত্যু বার্ষিকী পালিত                    বিলাইছড়িতে ৪৪ তম জাতীয় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি সপ্তাহে নানা আয়োজনে উদযাপন                    মহান বিপ্লবী নেতা এমএন লারমার আজ ৩৯তম মৃত্যু বার্ষিকী                    কাপ্তাইয়ে হ্রদের বুকে কচুরিপানার জট,সীমাহীন দুর্ভোগে                    কাপ্তাইয়ে আ`লীগ নেতাকে মারধরের প্রতিবাদে বিক্ষোভে সমাবেশ                    বাঘাইছড়িতে সীমান্ত সংযোগ সড়ক নির্মাণে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের ক্ষতিপূরণের দাবি                    বিলাইছড়িতে ডিজিটাল উদ্ভাবনী মেলার আয়োজন                    
 
ads

নিজের তোলা ছবি বিক্রি করে পাহাড়ের অসহায় মানুষের পাশে ধর্মরাজ

এনভিল চাকমা, : হিলবিডি টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published: 15 Jun 2020   Monday

করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবে স্থবির হয়ে পড়েছে গোটা দেশ । এতে অসহায় হয়ে পড়েছে পাহাড়ের অনেক মানুষ। লকডাউন হয়ে যাওয়ায় খাদ্য সংকটে ভুগছেন অনেকে। আর তাদের সাহায্যে এগিয়ে এসেছে এক তরুণ।

 

ইতিমধ্যে তার নিজের পছন্দের তোলা সাতটি ছবি বিক্রি করে অসহায় মানুষদের পাশে দাঁড়িয়েছেন তিনি।  

 

ধর্মরাজ তনচংগ্যা। বেড়ে ওঠা রাঙামাটি পার্বত্য জেলার রাজস্থলী উপজেলায়। ছোটকাল থেকে গান পাগল ছিলেন তিনি। সাথে মঞ্চ নাটকেও তার ছিল ভীষণ আগ্রহ। মাত্র ১২ বছর বয়ছে গ্রামের একটি যাত্রা দলের সাথে অভিনয় করেন। ঢাকার নটরডেম কলেজ থেকে উচ্চ মাধ্যমিক পাস করে ভর্তি হন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের নাট্যকলা বিভাবে। এর পর ছবি তোলার নেশা জন্মায় তার।  কলেজে পড়ার সময় একটি রেস্টুরেন্টে পার্টটাইম জব করে কিনে ফেলেন একটি ক্যাননের ডি ৭০০ মডেলের ক্যামেরা। সেখান থেকে মূলত তার ফটোগ্রাফি শুরু। দেশি-বিদেশি অনেকগুলো এক্সিবিশন করেছেন। ২০১৭ সালে ফাইন্ডিং বুড্ডিজম ইন বাংলাদেশ ফটোগ্রাফি কন্টেস্টে অংশগ্রহণ করে তিনি চ্যাম্পিয়ন হন। এছাড়া ফটো ফেস্ট এশিয়ায়  তার আলোকচিত্র এক্সিবিশনে প্রদর্শিত হয়েছে। এছাড়া গত বছর প্রাণ-রুচি আয়োজিত ট্রাভেল ফটোগ্রাফি প্রতিযোগিতায় তার একটি ছবি এক্সিভিশনে জায়গা করে নেন।

 

 

ছবি তোলার পাশাপাশি তিনি গান করেন,গান লিখেন গানের সুরও করেন নিজেই। তিনি একজন মঞ্চ অভিনেতা হিসেবেও বিশ্ববিদ্যালয়ে সবার কাছে পরিচিত। এ পর্যন্ত  তিনি প্রায় ২৫টি নাটকে অভিনয় করেছেন। বিশ্ববিদ্যালয়ের সাংস্কৃতিক সংগঠন উদীচী শিল্পীগোষ্ঠীর সাংগঠনিক সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। এছাড়া চবি পাহাড়ী শিক্ষার্থীদের সাংস্কৃতিক সংগঠন রঁদেভু শিল্পীগোষ্ঠীর একজন প্রতিষ্ঠাতা সাংগঠনিক সম্পাদক এবং পর্যায়ক্রমে সাধারণ সম্পাদক ও সভাপতি হিসেবে দায়ত্ব পালন করেছেন।

 

ধর্মরাজ জানান,সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে দেখলাম করোনার সময়ে পাহাড়ের অসহায় মানুষদের সাহায্য করার জন্য বিশ্ববিদ্যালয় পড়ুয়া কয়েকজন পাহাড়ি শিক্ষার্থী মিলে বনফুলের জন্য জুম্ম তরুণের ভালোবাসা নামে একটা ইভেন্ট খুলেছে । তখন আমার মাথায় চিন্তা আসলো কিভাবে তাদেরকে সহযোগিতা করা যায়। মূলত সেই চিন্তা থেকে আমার এই পরিকল্পনা মাথায় আসে। তারপর আমি সাতটি ছবি ফেসবুকের মাধ্যমে বিক্রির জন্য স্ট্যাটাস দিই। ছবিগুলোতে বেশ সাড়া পড়েছে। প্রতি ছবির দাম নির্ধারণ করা হয়েছে ২৫০০ টাকা। এই সাতটি ছবি বিক্রি করে যা টাকা পেয়েছি সেখান থেকে ১০,৫০০ টাকা সেই ইভেন্টে দিয়েছি। সিদ্ধান্ত নিয়েছি আরও  ১০ টি ছবি বিক্রি করবো । এ করোনার প্রভাব যতদিন থাকবে ততদিন  নিজের তোলা ছবি বিক্রি করে, গান করে পাহাড়ের মানুষগুলোর পাশে দাঁড়াবো।  

 

তিনি আরও জানান, রাজস্থলীতে ভলেন্টিয়ার অব রাজস্থলী নামের একটি সেচ্ছাসেবী সংগঠন করছি। স্থানীয় বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী ও কলেজ পড়ুয়া শিক্ষার্থীরা মিলে রাজস্থলীর দুর্গম এলাকার লোকজনের কাছে ত্রাণ পৌঁছে দিচ্ছি ৷ আমরা প্রথম ধাপে ১৫৩ পরিবারকে ত্রাণ উপহার দিয়েছি। পরে আরও ২০০ পরিবারকে ত্রাণ সহায়তা দেওয়া হয়েছে। আর এই সহযোগিতার জন্য আর্থিকভাবে সহযোগিতা করেছেন ম্যাজিক্যাল লাইট ফাউন্ডেশন,সিঙ্গাপুর নামে একটি প্রতিষ্ঠান 

--হিলবিডি২৪/সম্পাদনা/সিআর.

 

ads
ads
এই বিভাগের সর্বশেষ
আর্কাইভ