• Hillbd newsletter page
  • Hillbd rss page
  • Hillbd twitter page
  • Hillbd facebook page
সর্বশেষ
নির্বাচনকে সুস্থভাবে সম্পন্ন করতে সবাইকে সচেতন থাকতে হবে-লেঃ কর্ণেল মোহাম্মদ বাহালুল আলম                    জুরাছড়ির ছোট পানছড়ি প্রাথমিক বিদ্যালয় ভবন নির্মাণ কাজে অনিয়মের অভিযোগ                    রাজস্থলীতে সামাজিক নিরাপত্তা বেষ্টনী বিষয়ক প্রশিক্ষণ কর্মশালা                    রাঙামাটিতে পবিত্র ‘জশনে জুলুছ’ ঈদে মিলাদুন্নবী (সাঃ) উপলক্ষে সংবাদ সম্মেলন                    কাপ্তাইয়ে আরএইচস্টেপের এডভোকেসি সভা                    মহালছড়িতে ত্রিপুরা স্টুডেন্ট কাউন্সিলের সদস্যদের আর্থিক অনুদান প্রদান করেছে সেনাবাহিনী                    রাঙামাটির দুর্গা মাতৃ মন্দিরে জেলা পরিষদের শব্দযন্ত্র প্রদান                    কাপ্তাই ৫ আর ই ব্যাটালিয়নের ৪৩তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদযাপন                    রাঙামাটিতে কৃষক মাঠ স্কুল বিষয়ে ওরিয়েন্টেশন কর্মসূচি উদ্বোধন                    বরকল আওয়ামীলীগের ৬৭ সদস্য বিশিষ্ট নির্বাচন পরিচালনা কমিটি গঠন                    রাঙামাটিতে ঐতিহ্যবাহী বিচার ব্যবস্থার উন্নয়ন শীর্ষক পরামর্শক সভা অনুষ্ঠিত                    খাগড়াছড়িতে সরকারি দলের ফরম তুললেন কংজরী-রণবিক্রম-জুয়েল এবং অপু                    কাপ্তাই হ্রদে অভিযানে ১১বোটসহ ১৮শ মিটার জাল জব্দ                    সুবলং হরি মন্দিরে জেলা পরিষদের বাদ্যযন্ত্র প্রদান                    কাপ্তাইয়ে যুবলীগের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীতে যুব সমাবেশ                    বসন্ত সমবায় বৌদ্ধ বিহারে ২৪তম কঠিন চীবর দান সম্পন্ন                    ঢাকায় নানান আয়োজনে বিপ্লবী মানবেন্দ্র নারায়ণ লারমার ৩৫ তম মৃত্যুবার্ষিকী পালিত                    কতুকছড়িতে যৌথ অভিযানে চাদা আদায়ের রশিদ বইসহ দুজনকে আটক                    পার্বত্য চুক্তি বাস্তবায়নে সক্রিয় আন্দোলনে সামিল হওয়ার আহ্বান সন্তু লারমার                    বরকলে এমএন লারমার ৩৫তম মৃত্যু বার্ষিকী পালিত                    জুরাছড়িতে এম এন লারমার মৃত্যূ বার্ষিকী পালিত                    
 

পাহাড়ে ভ্রাতৃঘাতি সংঘাতে নয় মাসে ৩৪ জন নিহত

বিশেষ রিপোর্টার : হিলবিডি টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published: 18 Aug 2018   Saturday

পাহাড়ের ভ্রাতৃঘাতি সংঘাত দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে। ৯ মাসে ইউপিএফ,এমএন লারমা গ্রপের জনসংহতি সমিতি ও গণতান্ত্রিক ইউপিডিএফের মধ্যে সংঘাতে রাঙামাটি ও খাগড়াছড়ি জেলায় কমপক্ষে ৩৪ জন নিহত হয়েছেন। নিহতদের মধ্যে তিনটি সংগঠনের নেতাকর্মী  ছাড়া্ও সমর্থক ও সাধারন মানুষ রয়েছেন। 


একাধিক প্রাপ্ত সূত্রে জানা গেছে, দীর্ঘ আড়াই বছর ভ্রাতৃঘাতি সংঘাত বন্ধ থাকার পর গেল বছরের ৫ ডিসেম্বর থেকে আবারও শুরু হয় এই সংঘাত। ওই দিনে রাঙামাটির নানিয়ারচর উপজেলার নানিয়াচর ইউনিয়নে দোসরপাড়া এলাকা ইউপিডিএফের গ্রাম কমিটির সভাপতি ও সাবেক ইউপি সদস্য অনাদি রঞ্জন চাকমা (৫০) দুর্বৃত্তদের গুলিতে নিহত হন। ১৫ ডিসেম্বর রাঙামাটি সদর উপজেলা বন্দুকভাঙা ইউনিয়নে ইউপিডিএফের ইউনিয়ন সংগঠক অনল বিকাশ চাকমা নিহত হন। ৩ জানুয়ারি খাগড়াছড়ি সদরে মধুপুর এলাকায় ইউপিডিএফের কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য মিঠুন চাকমা নিহত হন। ১৭ ফেব্রুয়ারি খাগড়াছড়ি সদরে হরিনাথপাড়া এলাকায় ইউপিডিএফেরর কর্মী দীলিপ কুমার চাকমা ও ২১ ফেব্রুয়ারি খাগড়াছড়ির দীঘিনালা উপজেলার বোয়ালখালী ইউনিয়নের যৌথখামার এলাকায় ইউপিডিএফের কর্মী মাইন চাকমা নিহত হন। ১১ মার্চ রাঙামাটির বাঘাইছড়ি উপজেলার রুপকারী ও বঙ্গলতলী ইউনিয়নের মাঝামাঝি স্থানে ঝগড়াবিল এলাকায় ইউপিডিএফের কর্মী নতুন মনি চাকমা নিহত হন।

 

১১ এপ্রিল রাঙামাটির নানিয়ারচর উপজেলায় সাবেক্ষং ইউনিয়নের বেতছড়ি এলাকা হেডম্যান পাড়া এলাকা ইউপিডিএফের কর্মী সুনীল তঞ্চঙ্গ্যা ওরুপে জনিকে দুর্বৃত্তরা গুলি করে হত্যা করে। ১২ এপ্রিল নানিয়ারচর উপজেলার সাবেক্ষং ইউনিয়িরে বাজেছড়া ও জগনাতলী এলাকার জনসংহতি সমিতির (এমএন লারমা) কর্মী সাধন চাকমা ও কালোময় চাকমাকে গুলি করে হত্যা করে দুর্বৃত্তরা। ১৬ এপ্রিল খাগড়াছড়ি সদরের কমলছড়ি এলাকায় ইউপিডিএফের সমর্থক সুর্য বিকাশ চাকমা। ৩ মে রাঙামাটির নানিয়ারচর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান তাঁর কার্যালয়ের সামনে দুর্বৃত্তদের গুলি শক্তিমান চাকমা নিহত হন। তিনি জনসংহতি সমিতির ( এমএন লারমা) কেন্দ্রীয় কমিটির সহসভাপতি ছিলেন। একদিন পর তাঁর শেষকৃত্যে আসার পথে নানিয়ারচর উপজেলা সাবেক্ষং ইউনিয়নের বেতছড়ি বাজার এলাকায় দুর্বৃত্তদের গুলিতে ইউপিডিএফ গণতান্ত্রিক দলের প্রধান তপন জ্যোতি চাকমাসহ ৫জন নিহত হন।

 

২৮ মে রাঙামাটির বাঘাইছড়ি উপজেলা সাজেক ইউনিয়নের করল্যাছড়ি গ্রামে এবার দুর্বৃত্তদের গুলি ইউনাইটেড পিপল ডেমোক্রেটিক ফ্রন্টের ( ইউপিডিএফ) তিন কর্মী নিহত হয়েছেন। তাঁরা হলেন, স্মৃতি চাকমা (৫২), অটল চাকমা (৩৫) ও সঞ্জীব চাকমা (৩৯)। নিহতরা সবাই ইউপিডিএফের সক্রিয় কর্মী। ২১ মে খাগড়াছড়ির পানছড়ি উপজেলা মরাটিলা এলাকার ইউপিডিএফের কর্মী কাটাং ত্রিপুরা। ১৪ জুন রাঙামাটির লংগদু উপজেলার লংগদু ইউনিয়নের দোজরপাড়া এলাকায় জনসংহতি সমিতির (এমএন লারমা) কর্মী রঞ্জন চাকমা নিহত হন ও ১৭ জন রাঙামাটির বাঘাইছড়ি উপজেলা রুপকারী ইউনিয়নের দোখাইয়া মিলনপুর গ্রামে জনসংহতি সমিতির (এমএন লারমা) কর্মী সুরেন চাকমা দুর্বৃত্তদের গুলিতে নিহত হন।

 

১২জুন মাটিরাঙ্গা উপজেলার তাইন্দং এলাকায় জনসংহতি সমিতির (এমএন লারমা) কর্মী জ্ঞানেন্দ বিকাশ চাকমা ও ১৬জুন মাটিরাঙ্গা উপজেলার আলুটিলা এলাকায় ইউপিডিএফের কর্মী শান্তি জীবন চাকমা। ১৮ জুন খাগড়াছড়ির পানছড়ি উপজেলার মরাটিলা এলাকায় জনসংহতি সমিতির (এমএন লারমা) কর্মী বিজয় ত্রিপুরা। ২৬ জুলাই রাঙামাটির বাঘাইছড়ি উপজেলার বঙ্গলতলী ইউনিয়নের বেতাগীছড়া গ্রামে ইউপিডিএফ-জনসংহতি সমিতি (এমএন লারমা) সশস্ত্র কর্মীদের মধ্যে বন্দুকযুদ্ধে জনসংহতি সমিতির (এমএন লারমা) কর্মী বনকুসুম চাকমা নিহত হন। ৭ আগষ্ট খাগড়াছড়ির দীঘিনালা উপজেলা বোয়ালখালী ইউনিয়নের পোমাং পাড়ায় জনসংহতি সমিতির (এমএন লারমা) কর্মী মো. মঞ্জু আলম মারা যান।


সর্বশেষ শনিবার(১৮ আগষ্ট) খাগড়াছড়ির স্বনির্ভর ও পেরাছড়া এলাকায় দুবৃর্ত্তদের গুলিতে ৭ জন নিহত ৩ জন আহত হয়েছে। এর মধ্যে স্বনির্ভর এলাকায় ৬ জন এবং পেরাছড়া এলাকায় ১ জন নিহত হন। নিহতদের মধ্যে রয়েছেন ইউপিডিএফ সমর্থিত গণতান্ত্রিক যুব ফোরামের সহসভাপতি পলাশ চাকমা, পাহাড়ী ছাত্র পরিষদের জেলা শাখার ভারপ্রাপ্ত সভাপতি তপন চাকমা,পাহাড়ী ছাত্র পরিষদের সহসাধারণ সম্পাদক এলটন চাকমা, রূপম চাকমা, মহালছড়ি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের স্বাস্থ্য সহকারী জিতায়ন চাকমা, ও ঢাকার একটি বেসরকারী কোম্পানীর বিএসসি ইঞ্জিনিয়ার ধীরাজ চাকমা নিহত হন।

 

এছাড়া  একই দিনে দুপুর আনুমানিক ১২টার দিকে খাগড়াছড়ি-পানছড়ি সড়কের পেরাছড়া এলাকায় ঘটনার প্রতিবাদে আয়োজিত এক বিক্ষোভ কর্মসূচি চলার সময় দুর্বৃত্তরা হামলা করলে শিব মন্দির এলাকার বাসিন্দা শন কুমার চাকমা আহত হন। তাকে আহত অবস্থায় হাসপাতালে নিয়ে গেলে সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষনা করেন। তার মাথায় মারাত্নক আঘাত লাগে।
--হিলবিডি২৪/সম্পাদনা/সিআর.

 

আর্কাইভ