• Hillbd newsletter page
  • Hillbd rss page
  • Hillbd twitter page
  • Hillbd facebook page
সর্বশেষ
৩০ লক্ষ শহীদদের স্মরণে জুরাছড়িতে বৃক্ষ রোপণ কর্মসূচির উদ্বোধন                    বরকলে বৃক্ষ রোপণ কর্মসূচির উদ্বোধন                    ৩০ লক্ষ শহীদদের স্মরণে রাঙামাটিতে ৫৬ হাজার বৃক্ষরোপণ                    জাতীয় মৎস্য সপ্তাহ উপলক্ষে পানছড়িতে সংবাদ সম্মেলন                    পার্বত্য চুক্তির প্রতি শ্রদ্ধা রেখে সবাইকে কাজ করতে হবে-বৃষকেতু চাকমা                    পলি ও ড্যাম নির্মাণের কারণে কাপ্তাই হ্রদে রুই জাতীয় মাছের উৎপাদন কমছে                    কাপ্তাইয়ে মৎস্য সপ্তাহ উপলক্ষে সংবাদ সন্মেলন                    লামা ও আলীদমে উন্নয়ন কাজ পরিদর্শনে পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ড চেয়ারম্যান                    পানছড়িতে বিভিন্ন প্রজাতির সাত হাজার বৃক্ষরোপন                    কাপ্তাইয়ে ফলদ বৃক্ষ রোপন পক্ষ ও জাতীয় ফল প্রদর্শনী জমে উঠেনি!                    লামায় ৩বসত ঘর গুঁড়িয়ে দিয়েছে বন্য হাতির পাল                    কাপ্তাইয়ের অতি বৃষ্টিতে ক্ষতিগ্রস্হ ৯ পরিবারকে টেউটিন ও নগদ টাকা প্রদান                    নানিয়ারচরের ঘিলাছড়িতে এলজিসহ আটক ২                    স্কুল ছাত্রীকে ধর্ষণের প্রতিবাদে খাগড়াছড়িতে বিক্ষোভ-সমাবেশ                    আলীকদমে তিন দিনের ফলদ ও বৃক্ষ মেলার উদ্বোধন                    আলীকদমে হাসপাতালের জমি উদ্ধারে গঠিত তদন্ত কমিটির কাজ শুরু                    খাগড়াছড়িতে তথ্য অধিকার বিষয়ক কর্মশালা অনুষ্ঠিত                    লামায় মুক্তিযুদ্ধে নিহত ৩০ লাখ শহীদের স্মরনে ৩০ লক্ষ বৃক্ষ রোপন কর্মসূচি                    রাঙামাটি জেনারেল হাসপাতালে সেবা গ্রহীতাদের সাথে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের যৌথ সভা                    রাঙামাটিতে যুবদলের বিক্ষোভ-সমাবেশ                    কোটা সংস্কার আন্দোলনকারীদের উপর হামলা ও শিক্ষকদের লাঞ্ছিতের ঘটনায় পিসিপি’র নিন্দা                    
 

রাঙামাটিতে পাহাড় ধসের ঘটনায় ১১০ মৃত দেহ উদ্ধার, ব্যাপক আকারে উদ্ধার অভিযান সমাপ্ত

স্টাফ রিপোর্টার : হিলবিডি টোয়েন্টিফোর ডটকম
Published: 16 Jun 2017   Friday

রাঙামাটিতে ভারী বর্ষনে পাহাড় ধসের ঘটনায় শুক্রবার আরো ২জনের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। এ নিয়ে এ ঘটনায় নিহতের সংখ্যা ১১০ জনে এ দাড়িঁড়েছে। পাহাড় ধসের ঘটনায় নিখোজদের ব্যাপকহারে উদ্ধার অভিযান সমাপ্ত করা হয়েছে। তবে নিখোজের খবর পাওয়া গেলে স্থানীয় ফায়ার সার্ভিস উদ্ধার অভিযান চালাবে। 

 

এদিকে, এ অবস্থায় শুক্রবার দুর্গত এলাকা পরিদর্শনে আসা পানি সম্পদমন্ত্রী ব্যারিষ্টার আনিসুল ইসলাম মাহমুদ। এসময় তিনি ধসে যাওয়া সড়ক পথের পুনঃ নির্মাণে অনিশ্চিতি দেখা দেয়ায় নদী পথে কাপ্তাই রাঙামাটি নৌ চলাচলে লঞ্চের সংখ্যা বৃদ্ধিও করার পাশাপাশি নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্য,যানবাহনের চলাচল নিশ্চিত করার জন্য উপযুক্ত পরিমানের জ্বালানী চট্টগ্রাম থেকে আনায়নের উদ্যোগ ইত্যাদিসহ জনজীবন স্বাভাাবিক রাখার নিরিখে কার্যকর ব্যবস্থা গ্রহনের জেলা প্রশাসনকে নির্দেশ প্রদান করেছেন।

 

উল্লেখ্য, গেল মঙ্গলবার ভারী বর্ষনে রাঙামাটিতে পাহাড় ধসে মাটি চাপা পড়ে দুই সেনা কর্মকর্তা ও ৩ সেনা সদস্যসহ ১১০ জন মারা যান। এর মধ্যে এর মধ্যে রাঙামাটি সদও উপজেলায় ৬৩ জন, কাউখালী উপজেলায় ২৩ জন, কাপ্তাই উপজেলায় ১৮ জন, জুরাছড়ি ৪ জন ও বিলাইছড়ি ২ জন রয়েছেন। এ ঘটনায় শুধু রাঙামাটি শহরের ১৭টি আশ্রয় কেন্দ্রে ২১শ মানুষ আশ্রয় নিয়েছেন।


উদ্ধার অভিযানের অংশ হিসেবে শুক্রবার সার্ভিস ও স্থানীয় লোকজন উদ্ধার অভিযান চালিয়ে ভেদেভেদীর দক্ষিণ মুসলিম পাড়া এলাকা থেকে মুজিবুর রহমান(১২) এবং অরণ্যক এলাকার কাপ্তাই হ্রদ থেকে ইব্রাহিম(২৫) মৃতদেহ উদ্ধার করেছে। নিহত ইব্রাহিমের বাড়ী দক্ষিণ মুসলিম পাড়া এলাকায়। তার মৃত পাহাড়ী ঢলে কাপ্তাই ভেসে যায়। নিখোজের চার দিনের মাথায় তার লাশ পানিতে ভেসে উঠে।


রাঙামাটি শহরে পাহাড় ধসের ঘটনায় ক্ষতিগ্রস্থ লোকজনদের আশ্রয়ের জন্য বিভিন্ন বিদ্যালয় ও সরকারী ভবনে ১৭টি আশ্রয় কেন্দ্র খোলা হয়েছে। এসব আশ্রয় কেন্দ্রে শিশু মহিলা পুরুষ আশ্রয় নিয়েছেন। এ পর্ষন্ত এসব আশ্রয় কেন্দ্রে ২১শ জন আশ্রয় নিয়েছেন।


পাহাড় ধসের ঘটনার পর চতূর্থ দিনেও রাঙামাটি-চট্টগ্রাম সড়ক ভেঙ্গে গিয়ে সারাদেশের সাথে সড়ক যোগাযোগ বর্তমানে বিচ্ছিন্ন রয়েছে। তবে চট্টগ্রামের সাথে বিকল্প রুট হিসেবে সড়ক পথে কাপ্তাই পর্ষন্ত এবং কাপ্তাই থেকে নৌপথে লঞ্চ চলাচল ব্যবস্থা করা হয়েছে। রাঙামাটি শহরে গেল বৃহস্পতিবার রাত থেকে বিদ্যুৎ সরবরাহ করা হলেও তা অত্যন্ত সীমিত আকারের বলে উল্লেখ করেছেন বিদ্যূৎ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী সবুজ কান্তি মজুমদার।


এদিকে, পাহাড় ধসের ঘটনায় নিখোজদের ব্যাপকহাওে উদ্ধার অভিযান সমাপ্ত করা হয়েছে। তবে যেখানে নিখোজের খবর পাওয়া যাবে সেখানে স্থানীয় ফায়ার সার্ভিস উদ্ধার অভিযান পরিচালনা করবে বলে ফায়ার সার্ভিস এন্ড ডিফেন্সের অপারেশন মেন্টেনেন্ট-এর পরিচালক মেজর শাকিল নেওয়াজ।

 

শুক্রবার রাঙামাটিতে পাহাড় ধ্বসে ক্ষতিগ্রস্থ এলাকা পরিদর্শন করেছেন পানি সম্পদ মন্ত্রী ব্যারিষ্টার আনিসুল ইসলাম মাহমুদ। শুক্রবার বিকেলে ক্ষতিগ্রস্থ বিভিন্ন এলাকা পরিদর্শন করেন পানি সম্পদ মন্ত্রী।

 

এর আগে বিকেলে জেলা প্রশাসনের কার্যালয়ের সম্মেলন কক্ষে এক সভা অনুষ্ঠিত হয়। জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ মানজারুল মান্নানের সভাপতিত্বে এ মতবিনিময় সভায় রাঙামাটি আসনের সাংসদ উষাতন তালুকদার, পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রনালয়ের সচিব নবকিশোর ত্রিপুরা, ত্রাণ মন্ত্রালয়ের মহাপরিচালক রিয়াজ আহম্মেদ, চাকমা রাজা দেবাশীষ রায়, রাঙামাটি রিজিয়ন কমান্ডার বিগ্রেডিয়ার জেনারেল গোলাম ফারুখ,রাঙামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান বৃষকেতু চাকমা,পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ডের ভাইস চেয়ারম্যান তরুন কান্তি ঘোষসহ প্রশাসনের উর্দ্ধতন কর্মকর্তরা উপস্থিত ছিলেন।


এসময় পানি সম্পদ মন্ত্রী ব্যারিষ্টার আনিসুল ইসলাম মাহমুদ বলেন, রাঙামাটিতে এ বর্ষায় আরো বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা রয়েছে। পাহাড় ধসে আর কোন প্রানহীন যাতে না ঘটে সে জন্য পাহাড়ের ঝুঁকিতে থাকা মানুষদের সরিয়ে নিতে প্রশাসনকে ব্যবস্থা নেয়ার নির্দেশ দেন।


তিনি এ দুর্যোগ কাটিয়ে উঠতে প্রধানমন্ত্রী সার্বিক দিক নির্দেশনার কথা উল্লেখ করে বলেন,এ কথা সত্য যে পার্বত্য চট্টগ্রামে যুগ যুগ ধরে যে চাষাবাদ পদ্ধতি চলে আসা হচ্ছিল তার ব্যাপক পরিবর্তন, ভূমি ব্যবহারে নির্দয় ব্যবস্থা গ্রহনের যে অভিযোগগুলো এ অঞ্চলের ক্ষেত্রে ঘটে থাকে তাও অনেকটা সত্য। তাই এবারের দুর্যোগ ব্যবস্থা মোকাবেলার জন্য সকলের সম্মিলিত ও সচিন্চিত পরিকল্পনা গ্রহন করা দরকার।


তিনি নিহত ও ক্ষতিগ্রস্থ পরিবারসমুহের ক্ষতিপূরণ,পূর্নবাসন ও আশ্রিতদের যথাযথ খাদ্য সরবরাহ নিশ্চিত করার আহ্বান জানিয়ে বলেন এ ক্ষেত্রে সরকারের যথেষ্ট আন্তরিকতা রয়েছে, অর্থেও কোন ঘাটতি হবে না। তবে প্রয়োজন আন্তরিক ও নিষ্টামূলক ব্যবস্থা গ্রহনের।


অন্যদিকে, জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ মানজারুল মান্নান রাঙামাটি-চট্টগ্রাম সড়ক যোগাযোগ ব্যবস্থা এখনো চালু হতে কয়েক দিন সময় লাগার কথা উল্লেখ করে এটির পূনঃ চালুকরনের ক্ষেত্রে কিছু সময় লাগতে পারে। তিনি যানবাহন ব্যবস্থা সচল রাখার ক্ষেত্রে চট্টগ্রাম থেকে বাংলাদেশ পেট্রোলিয়াম কর্পোরেশনের অধিনন্থ তিনটি প্রতিষ্ঠান থেকে ডিজেল এবং পেট্রোল সররবরাহের ব্যাপারে সংশ্লিষ্টদের রাজী করার কথা উল্লেখ স্থাণীয় পেট্রোল পাম্প ও খুচরা তৈল বিক্রেতাদের সংঘবদ্ধভাবে সিদ্ধান্ত গ্রহনের তাগিদ দেন।
--হিলবিডি২৪/সম্পাদনা/সিআর.

 

আর্কাইভ